অবৈধ সম্পদ অর্জন ও তথ্য গোপনের মামলায় বিদ্যুৎ অফিসের সাবেক প্রধান প্রকৌশলীর কারাদণ্ড

সংগ্রহীত

অবৈধ সম্পদ অর্জন ও তথ্য গোপনের মামলায় বিদ্যুৎ অফিসের সাবেক প্রধান প্রকৌশলীর কারাদণ্ড

অবৈধ সম্পদ অর্জন ও তথ্য গোপনের মামলায় বিদ্যুৎ অফিসের সাবেক প্রধান প্রকৌশলী একেএম শফিকুল আহসানকে সাত বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।  

মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) ঢাকার নবম বিশেষ জজ শেখ হাফিজুর রহমান এ রায় দেন।

দণ্ডিত শফিকুল আহসান এসময় আদালতে উপস্থিত ছিলেন। রায় ঘোষণার পর আদালত জামিন বাতিল করে সাজা পরোয়ানা দিয়ে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

শফিকুলকে দুর্নীতি দমন আইনের ২৬ (২) ধারায় দুই বছরের কারাদণ্ড, এবং ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক মাস বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেন আদালত। এছাড়া একই আইনের ২৭ (১) ধারায় ৫ বছরের কারাদণ্ড এবং অসাদু উপায়ে অর্জিত ৬৯ লাখ ২৬ হাজার ১৯২ টাকা রাষ্ট্রের অনুকূলে বাজেয়াপ্তের নির্দেশ দেন আদালত।  

বগুড়া জেলার সোনাতলা থানার হক আবাস এলাকার মৃত ডা. মোজাম্মেল হকের ছেলে একেএম শফিকুল আহসানের বিরুদ্ধে ৩৫ লাখ টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জন এবং ১ কোটি ৭০ লাখ ১২ হাজার ৬৮৩ টাকার সম্পদের তথ্য গোপনের অভিযোগে ২০১০ সালের ১ জুন দুদকের সহকারী পরিচালক এসএমএম আখতার হামিদ ভুইয়া রাজধানীর রমনা থানায় মামলাটি দায়ের করেন।
তদন্তের পর ২০১৫ সালের ১৫ অক্টোবর একই কর্মকর্তা আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। পরবর্তীসময়ে আদালত এ মামলায় অভিযোগ গঠনের মাধ্যমে বিচার শুরু করেন।

জানা যায়, শফিকুল আহসান, তার স্ত্রী ও শ্যালকের নামেই অবৈধ সম্পদ গড়ে তোলেন। তার স্ত্রী ও শ্যালকের নামে আলাদা আলাদা মামলা আদালতে বিচারাধীন।