অস্ট্রেলিয়ায় ডেল্টা স্ট্রেন আতঙ্ক, কড়া লকডাউনের পথে সিডনি

সংগ্রহীত

অস্ট্রেলিয়ায় ডেল্টা স্ট্রেন আতঙ্ক, কড়া লকডাউনের পথে সিডনি

করোনার ‘ডেল্টা স্ট্রেন’ ছড়িয়ে পড়ায় শুক্রবার (১০ জুলাই) অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে কড়া লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। সংক্রমণ বহুদিন থেকেই মাথাচাড়া দিচ্ছে।

সিডনির জনসংখ্যা ৫০ লাখের বেশি। এখনো সেখানকার বহু মানুষের টিকা নেওয়া হয়নি। এই পরিস্থিতিতে অস্ট্রেলিয়ার বৃহত্তম শহরে ছড়িয়ে পড়েছে সংক্রমণ। ফলে আতঙ্কিত প্রশাসন। ফলে এবার পুরোপুরি কড়া লকডাউনের সিদ্ধান্ত।

প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে পা না রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বাসিন্দাদের। জুনের মাঝামাঝি সময় থেকে সিডনিতে করোনা আক্রান্ত ৪৩৯ জন। এর মধ্যে সব থেকে খারাপ অবস্থা নিউ সাউথ ওয়েলসের। সেখানকার বাসিন্দাদের বিরুদ্ধেই সবচেয়ে বেশি করোনার স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলায় উদাসীনতা লক্ষ করা গেছে। এটা অতিমারি শুরুর সময় থেকেই দেখা গেছে বলে দাবি প্রশাসনের।

আপাতত এখনো সিডনিতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বিশ্বের অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ শহরের তুলনায় কমই। কিন্তু গোড়া থেকেই করোনাকে রুখতে সফল অস্ট্রেলিয়া। কখনো-ই সেখানে মাথাচাড়া দিতে পারেনি প্রাণঘাতী এই ভাইরাস। সেই দিক দিয়ে দেখতে গেলে ডেল্টার আক্রমণে গত কয়েক সপ্তাহ ধরে যেভাবে সংক্রমণের গ্রাফ ঊর্ধ্বমুখী হচ্ছে তাতে যথেষ্ট ভয়ের কারণ রয়েছে বলেই মত বিশেষজ্ঞদের।

আর সেই কারণেই এবার লকডাউন কড়া করার সিদ্ধান্ত। নতুন লকডাউনে পরিষ্কার জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, বাইরে দু’জনের বেশি একসঙ্গে জমায়েত নিষিদ্ধ। অপ্রয়োজনে বাইরে বের হওয়ার নিষেধাজ্ঞা আগেই ছিল। এবার সেই নিষেধাজ্ঞাই আরও কড়া হলো।