আইপিএল ছেড়ে দ্বিতীয় টেস্টে দলে ফিরছেন মুস্তাফিজ রহমান

আইপিএল ছেড়ে দ্বিতীয় টেস্টে দলে ফিরছেন মুস্তাফিজ রহমান
ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) চলতি আসরে দিল্লি ক্যাপিটালসের হয়ে মাঠ মাতাচ্ছেন টাইগার পেসার মুস্তাফিজুর রহমান। ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্লাবটিকে সার্ভিস দিতে আগামী মে মাস পুরোটাই থাকতে হতে পারে কাটার মাস্টারকে। এদিকে একই সময়ে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দুটি টেস্ট ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন আগেই আভাস দিয়েছিলেন, লঙ্কানদের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে প্রয়োজন হলে আইপিএল ছেড়ে ফিজকে খেলতে হবে দেশের হয়ে। এবার প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নুর মুখেও শোনা গেল একই কথা।
মুস্তাফিজুর রহমান অভিষেক টেস্টেই ‘ম্যান অব দ্য ম্যাচ’ হয়ে আশার পালে দিয়েছিলেন হাওয়া। একজন জেনুইন টেস্ট বোলার পাওয়ার প্রত্যাশায় বুকবাঁধা বাংলাদেশের আশাভঙ্গে সময় লাগেনি খুব একটা অবশ্য। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে চট্টগ্রামে অভিষেকের পর সাত বছরে মাত্র ১৪ টেস্টেই থমকে আছে মুস্তাফিজের টেস্ট ক্যারিয়ার। সবাই যখন মুস্তাফিজকে টেস্টের আঙিনায় দেখতে চায় মুস্তাফিজ তখন ব্যস্ত ফ্রাঞ্চাইজি ক্রিকেটের রঙিন জগতে। আইপিএলে ব্যস্ত মুস্তাফিজ কি আর আদৌ টেস্ট খেলতে চান -এমন প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার সময় না এলেও কাটার মাস্টার ইঙ্গিত দিচ্ছেন অন্য ফরম্যাটে ক্যারিয়ার দীর্ঘায়িত করতে লাল বলের ক্রিকেটে ফিরতে আগ্রহী নন আর।

২০২১ সালের ফেব্রুয়ারিতে শেষবারের মতো টেস্ট খেলেছেন মুস্তাফিজুর রহমান। লাল বলের খেলা থেকে দূরে থাকতে চাওয়ায় তাকে রাখা হয়নি টেস্টের চুক্তিতেও। তবে হুট করেই টেস্ট দলে মুস্তাফিজের অন্তর্ভুক্তির বিষয়ে শুরু হয়েছে কানাঘুষা। লঙ্কানদের বিপক্ষে হোম সিরিজ সামনে রেখে ঘরের মাঠে মুস্তাফিজের সাফল্য আর চোট জর্জরিত পেস বোলিং ইউনিটের ভাবনা থেকে নীতিনির্ধারকদের অনেকে মুস্তাফিজকে টেস্ট স্কোয়াডে চেয়েছিলেন। যদিও মুস্তাফিজকে ছাড়াই ঘোষণা করা হয়েছে প্রথম টেস্টের দল।

তবে তারপরও মুস্তাফিজ টেস্ট ভাবনার বাইরে চলে গেছে, এমনটাও নয়। গণমাধ্যমকে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু জানিয়েছেন, প্রয়োজন হলে দ্বিতীয় টেস্টের জন্য ভারত থেকে উড়িয়ে আনা হতে পারে তাকে।

গণমাধ্যমকে নান্নু বলেন, ‘আমাদের চুক্তিতে যে খেলোয়াড়রা আছে বা ঘরোয়া ক্রিকেটে যারা খেলছে সবাইকে নিয়েই আমরা আলোচনা করি। মুস্তাফিজকে নিয়েই বাড়তি আলোচনা করেছি। এটা আমাদের মাথায় আছে। দলের প্রয়োজন হলে অবশ্যই ওকে নিয়ে চিন্তা করব। প্রথম টেস্টের স্কোয়াড ইতোমধ্যে দিয়ে দিয়েছি। দ্বিতীয় টেস্টে দরকার হলে চিন্তা করা হবে।’

এর আগে শনিবার (২৩ এপ্রিল) বোর্ডের এক সভা শেষে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে পাপন বলেন, ‘কে কোন ফরম্যাট খেলতে চায় তা জানতে আমরা খেলোয়াড়দের একটা ফর্ম পাঠিয়ে দিয়েছিলাম। সে অনুযায়ী তাদের রাখা হয়েছে। মুস্তাফিজ কিন্তু টেস্টের জন্য নাম লেখায়নি। ও বলেনি টেস্ট খেলতে চায়। কিন্তু ও বলল কি বলল না সেটা বড় কথা নয়। আমাদের যখন দরকার হবে অবশ্যই সে খেলবে। কাজেই এখন যদি শ্রীলঙ্কা সিরিজেও মুস্তাফিজকে দরকার হয়, অবশ্যই খেলবে।’

এদিকে দিল্লি যদি প্লে অফেও কোয়ালিফাই না করতে পারে, তাদের গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচ হবে আগামী ২১ মে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের বিপক্ষে। অন্যদিকে বাংলাদেশ লঙ্কানদের বিপক্ষে দুটি টেস্ট ম্যাচ খেলবে আগামী ১৫ ও ২৩ মে। ফলে আইপিএল ছেড়েই মুস্তাফিজকে যোগ দেওয়া লাগতে পারে টাইগার শিবিরে।