আঙুলের ছাপ মেলেনি, ভোট দিতে পারেননি জাপা প্রার্থী

আঙুলের ছাপ মেলেনি, ভোট দিতে পারেননি জাপা প্রার্থী

সিলেট-৩ আসনে উপনির্বাচনে ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) আঙুলের ছাপ না মেলায় নিজের ভোট দিতে পারেননি জাতীয় পার্টির (জাপা) প্রার্থী আতিকুর রহমান আতিক। আজ শনিবার সকাল ১০টায় রেবতী রমন উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট দিতে যান তিনি।

ভোট কক্ষ থেকে বেরিয়ে আতিক জানান, প্রথমে একটি বুথে ঢুকে ইভিএমে ভোট দিতে ব্যর্থ হন। এরপর একে একে আরও দুটি বুথে গিয়ে আঙুলের ছাপ না মেলায় ব্যর্থ হন।

ইভিএমে ভোট দিতে হলে ইসির সংগ্রহে থাকা ভোটারের আঙুলের ছাপ মেলার পরই ব্যালট খোলে। আর ব্যালট খুললেই ভোট দেওয়া যায়। আতিক জানান, তাকে পুনরায় আসতে বলেছেন নির্বাচন কর্মকর্তারা।

রেবতী রমন উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রের প্রিজাইডিং কর্মকর্তা মো. মাসুদ রানা বলেন, ‘প্রযুক্তিগত কারণে জাতীয় পার্টির প্রার্থী আতিকুর রহমান ভোট দিতে পারেননি। বিষয়টি আমরা ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের জানিয়েছি। আশা করি, সমাধান হয়ে যাবে।’

জাপার প্রার্থী আতিক ভোট দিতে না পারলেও নৌকার প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিব ও স্বতন্ত্র প্রার্থী শফি আহমেদ চৌধুরী ইভিএমে ভোট দিতে পেরেছেন বলে জানা গেছে। শনিবার সকালে দক্ষিণ সুরমার কামাল বাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট দেন হাবিব। সাবেক বিএনপি এমপি শফি আহমেদ চৌধুরী দাউদিয়া গৌছ উদ্দিন সিনিয়র মাদ্রাসায় ভোট দেন।

আওয়ামী লীগের মাহমুদুস সামাদ চৌধুরীর মৃত্যুতে সিলেট-৩ শূন্য আসনে উপনির্বাচনে ভোটগ্রহণ চলছে। এই আসনে যে চারজন প্রার্থী, তার একজন লাঙল প্রতীকের আতিক।