আজ বিএনপির শোভাযাত্রা

আজ বিএনপির শোভাযাত্রা
মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে রাজধানীতে বিজয় শোভাযাত্রা করবে বিএনপি। রোববার (১৯ ডিসেম্বর) দুপুর ২টায় নয়াপল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে শুরু হবে এ শোভাযাত্রা।

শনিবার (১৮ ডিসেম্বর) বিকেলে নয়াপল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে দলটির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী এ তথ্য জানান।

বিজয় শোভাযাত্রা সফল করতে বিএনপি এবং এর অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের সব পর্যায়ের নেতাকর্মীদের যথাসময়ে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে উপস্থিত হওয়ার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন রিজভী।

সংবাদ সম্মেলনে রিজভী বলেন, সরকারের অমানবিকতার বিরুদ্ধে দেশবাসী ক্ষুব্ধ ও প্রতিবাদে সোচ্চার। জনগণের নেত্রী খালেদা জিয়াকে হাজারো বাধার মুখেও আটকে রাখা যাবে না জেনেই তার জীবনকে নিঃশেষ করে দেওয়ার যাবতীয় আয়োজন চালিয়ে যাচ্ছে ভোটারবিহীন সরকার।
রিজভী বলেন, ‘এ মুহূর্তে বাকস্বাধীনতা, সংবাদপত্রের স্বাধীনতা, কথা বলার স্বাধীনতা, সভা-সমাবেশের স্বাধীনতাসহ মৌলিক মানবাধিকার হরণ করা হয়েছে। দেশে গণতন্ত্রের বিকাশের স্থানে নাৎসিবাদের বিকাশ লাভ করেছে। ক্ষমতায় চিরস্থায়ীভাবে টিকে থাকার মোহ থেকেই আওয়ামী শাসকগোষ্ঠী বারবার গণতন্ত্রকে জবাই করেছে। আর এটি করতে গিয়ে সারা দেশকেই বধ্যভূমিতে পরিণত করেছে। তারা দেশের জনগণ, বিরোধী রাজনৈতিক দল ও বিরোধীমতের মানুষকে মনে করে ভাড়াটিয়া বা প্রজা, আর নিজেদের দেশের মালিক মনে করে।’
বিএনপির এই নেতা অভিযোগ করেন, শুক্রবার (১৭ ডিসেম্বর) ডিবি পুলিশ পরিচয়ে সাদা পোশাকধারীরা ঢাকা মহানগর উত্তর আদাবর থানাধীন ৩০ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মনোয়ার হাসান জীবনকে তুলে নিয়ে গেছে। এখন পর্যন্ত তার হদিস না মেলায় পরিবারসহ বিএনপি উদ্বিগ্ন। সাদা পোশাকধারী আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তুলে নিয়ে যাওয়া নিশিরাতের সরকারের চলমান গুমের আরেকটি নিকৃষ্ট দৃষ্টান্ত। অবিলম্বে জীবনকে জনসমক্ষে হাজির করার দাবি জানান তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে আরও ছিলেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আহমেদ আযম খান, ঢাকা বিভাগীয় সহসাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুস সালাম আজাদ প্রমুখ।
এদিকে বিএনপির নীতিনির্ধারকরা জানিয়েছেন, নির্বাচন কমিশন (ইসি) পুনর্গঠন প্রক্রিয়ায় রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে রাষ্ট্রপতির সংলাপে বিএনপি অংশগ্রহণ করবে না।
এমনকি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসার জন্য রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সংলাপে আবেদন জানানোর সুযোগ ভাবাটাও অর্থহীন বলছেন তারা। নির্দলীয় নিরপেক্ষ নির্বাচন ব্যবস্থা নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত নির্বাচন কমিশন নিয়েও বিএনপি মাথা ঘামাচ্ছে না বলেও সাফ জানিয়ে দিয়েছেন দলটির নীতিনির্ধারকরা।
বর্তমান নির্বাচন কমিশনের মেয়াদ শেষ হওয়ার আগে সার্চ কমিটির মাধ্যমে কমিশন পুনর্গঠন প্রক্রিয়ায় বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সংলাপের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। আগামী ২০ ডিসেম্বর শুরু হতে যাওয়া এ সংলাপে কারা অংশ নেবেন, আর আমন্ত্রণই বা কারা পাবেন; তার দিকেই সবার দৃষ্টি এখন।