আফগানিস্তানে খাদ্য সংকট, সতকর্তাবার্তা জাতিসংঘের

আফগানিস্তানে খাদ্য সংকট, সতকর্তাবার্তা জাতিসংঘের

আফগানিস্তানে আগামী এক মাসের মধ্যে খাদ্য সংকট দেখা দিতে পারে বলে সতর্কতাবার্ত দিয়েছে জাতিসংঘ।

পরিস্থিতি এতোটাই ভয়াবহ হয়ে উঠতে পারে যে, প্রতি তিন জনে এক জনকে না খেয়ে দিন পার করতে হতে পারে।

প্রায় দুই সপ্তাহ আগে আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের নিয়ন্ত্রণ নিলেও এখনও পর্যন্ত সরকার গঠন করতে পারেনি তালেবান। এমতাবস্থায় আফগানিস্তানের ভয়াবহ খাদ্য সংকট নিয়ে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করলো জাতিসংঘ।

বুধবার (১ সেপ্টেম্বর) আফগানিস্তানে জাতিসংঘের মানবিক সহায়তা সমন্বয়কারী রমিজ আলাকবারোভ বলেন, মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকে আফগানিস্তানের পরিস্থিতি অত্যন্ত সঙ্গীন।

তিনি বলেন, পরের বেলা খাবার জুটবে কিনা তা জানে না দেশটির অর্ধেকের বেশি শিশু।

আল জাজিরা জানতে পেরেছে যে, সাম্প্রতিক দিনগুলোতে আফগানিস্তানের দ্রব্যমূল্য বেড়েছে।

তারা বলছে, দেশটিতে খাদ্যদ্রব্যের দাম প্রায় ৫০ শতাংশ বেড়েছে। একইসঙ্গে পেট্রোলের দাম প্রায় ৭৫ শতাংশ বেড়ে গেছে।

তালেবান ক্ষমতা দখল করে নেওয়ার পরপরই বন্ধ হয়ে গেছে অধিকাংশ আন্তর্জাতিক আর্থিক সহায়তা।

সেটির দিকে ইঙ্গিত করে আলাকবারোভ বলেন, সরকারি অফিসগুলো বন্ধ রয়েছে এবং সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা বেতন পাচ্ছে না।

তালেবান এখনও একটি নতুন সরকার গঠন করেনি। আর তাদের আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি এখনও প্রশ্নের মুখে রয়েছে। তাই বন্ধ রয়েছে বিদেশি সহায়তাও।

এর আগে, বিশ্বব্যাংক এবং আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের মতো প্রতিষ্ঠানগুলো সহায়তা বন্ধের ঘোষণা দেয়।