আবারও ভয়াবহ দাবানলে পুড়ছে আমাজন

আবারও ভয়াবহ দাবানলে পুড়ছে আমাজন

পৃথিবীর ‘ফুসফুস’ খ্যাত আমাজন বন ভয়াবহ দাবানলে পুড়ছে । এ নিয়ে টানা তৃতীয়বারের মত আগুনের ঘটনা ঘটল আমাজনে। কেটে ফেলা গাছের গুঁড়িগুলো পুড়ে কয়লা হয়ে দাঁড়িয়ে আছে শুকনো কাঠির মতো। আমাজনের এমন ভয়াবহ অবস্থা গেল এক দশকেও দেখেনি কেউ। এতে উদ্বিগ্ন পরিবেশবাদীরা।

গত কয়েক বছরে দক্ষিণ আমাজনে বন উজাড়ের হার বেড়ে গেছে বলে জানিয়েছে সংবাদ সংস্থা রয়টার্স।

রয়টার্স’এর তথ্যমতে, গত বুধবার এবং বৃহস্পতিবার ল্যাবরিয়া শহরের সীমান্তবর্তী এলাকা ছাড়াও আশপাশের ন্যাশনাল পার্কেও গাছ কেটে পুড়িয়ে ফেলা হচ্ছে। ফলে গত বছরের তুলনায় এ বছর সৃষ্ট দাবানলের পরিমাণও বেশি হচ্ছে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

এছাড়া, একরের পর একর বনাঞ্চল উজাড় করে প্রকৃতিকে বিপর্যয়ের দিকে ঠেলে দেওয়ায় চরম সমালোচনার মুখে পড়ছেন ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জেইর বলসোনারো।তিনি ক্ষমতায় থাকাকালীন তৃতীয়বারের মতো রেকর্ডসংখ্যক একর বনাঞ্চল ধ্বংস হলো।

 

এদিকে আমাজন এলাকায় সৃষ্ট দাবানলের কারণ হিসেবে সেনাবাহিনীর ক্যাম্প স্থানান্তর, কৃষি সম্প্রসারণ আর একের পর এক উন্নয়ন কার্যক্রমকেই দায়ী করছেন পরিবেশবিদরা। আশঙ্কা করা হচ্ছে, অচিরেই মারাত্মক হুমকির মুখে পড়বে প্রাণের অস্তিত্ব।

দাবানলের কারণে লাখ লাখ প্রাণী বিলুপ্ত হয়ে গেছে। এ অবস্থা চলতে থাকলে সবাইকে পরিবেশ বিপর্যয়ের মাশুল দিতে হবে বলে হুঁশিয়ারি বিশেষজ্ঞদের।