আর্জেন্টিনার ফাইনাল বাধা কলম্বিয়া

সংগ্রহীত

আর্জেন্টিনার ফাইনাল বাধা কলম্বিয়া

আর্জেন্টিনা-ব্রাজিলের সুপার এল ক্লাসিকো ম্যাচ দেখতে উন্মুখ হয়ে আছে কোটি কোটি ভক্ত। কোপার ফাইনালে ইতোমধ্যে জায়গা করে নিয়েছে নেইমারের ব্রাজিল। এবার ফাইনালের জায়গা করে নেয়ার পালা আর্জেন্টিনার। আর সে পথে মেসিদের বাধা কলম্বিয়া। এই বাধা অতিক্রম করতে পারলেই হবে কাঙ্খিত ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা স্নায়ুক্ষয়ী ফাইনাল।

আগামীকাল বুধবার সকাল সাতটায় সেমিফাইনালের ম্যাচে কলম্বিয়ার মুখোমুখি হবে আর্জেন্টিনা। ব্রাজিলের ন্যাশনাল মানে গারিঞ্চা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে এই ম্যাচ।

আর্জেন্টিনার চোখ ফাইনালে। বিশেষ করে বললে, লিওনেল মেসি পাখির চোখ করে আছে আরেকটি ফাইনাল খেলার জন্য। বার্সার হয়ে মেসির কত রেকর্ড, ট্রফি, গোল। কিন্তু আর্জেন্টিনার হয়ে হিসেবের খাতাটা শূন্য। ২০১৪ থেকে ২০২১, এর মধ্যে তিনটি বড় টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেললেও শিরোপায় চুমু আকা হয়নি মেসির। ২০১৪ ব্রাজিল বিশ্বকাপের ফাইনালে জার্মানির সঙ্গে হার। এরপর টানা দুটি বছরে কোপার ফাইনালে চিলির সঙ্গে টাইব্রেকারে হার। গত কোপায় সেমিতেই আটকে যায় আর্জেন্টিনা, ব্রাজিলের সঙ্গে।

চিলির বিপক্ষে নিজেদের উদ্বোধনী ম্যাচটি ১-১ গোল ব্যবধানে ড্র হওয়ার পর জিতেই চলেছে আর্জেন্টিনা। গ্রুপ পর্বের চার ম্যাচে একটি ড্র এবং তিনটি জয়ে সর্বোচ্চ ১০ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই কোয়ার্টারে উঠে দুইবারের বিশ্বকাপজয়ীরা। আর সেরা আটের লড়াইয়ে আরো ভয়ঙ্কর হয়ে উঠে মেসি বাহিনী। সেমিফাইনালে উঠার লড়াইয়ে ইকুয়েডরকে উড়িয়ে দিয়েছে ৩-০ গোল ব্যবধানে।

অন্যদিকে গ্রুপপর্বে নিজেদের শেষ দুই ম্যাচ হারলেও কলম্বিয়াকে ছোট করে দেখার সুযোগ নেই। কেননা তাদের মধ্যে রয়েছে শিরোপা জয়ের প্রবল ইচ্ছা শক্তি। গ্রুপ পর্বে ৪ ম্যাচে ৪ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয়স্থানে অবস্থান ছিল হামেস রদ্রিগেজদের। সেরা আটের লড়াইয়ে তুলনামূলক কঠিন প্রতিপক্ষই পায় দলটি। কিন্তু উরুগুয়ের বিপক্ষে শেষ হাসি হেসেছে কলম্বিয়াই। নির্ধারিত সময়ে ম্যাচটি গোলশূন্যেতে ড্র হলে টাইব্রেকারে ৪-২ গোল ব্যবধানে জিতে সেমিফাইনালে উঠে রেনালদো রুয়েদার শিষ্যরা।

ফিফা কর্তৃক প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে সেরা পাঁচের মধ্যে কোনো দল না থাকলেও কলম্বিয়া থেকে খানিকটা উপরেই অবস্থান করছে আর্জেন্টিনা। ১৬৪২ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে ইতালির পরেই আটে নম্বরে অবস্থান লিওনেল স্কালোনির শিষ্যদের। অন্যদিকে র‌্যাঙ্কিংয়ে কলম্বিয়া রয়েছে ছয় ধাপ পেছনে। ১৬০১ রেটিং পয়েন্টে তাদের অবস্থান ১৫ নম্বরে।

১৯৪৫ সালের ৭ ফেব্রুয়ারি কোপা আমেরিকা ফুটবল টুর্নামেন্টেই আর্জেন্টিনা এবং কলম্বিয়া একে অপরের বিপক্ষে প্রথম মাঠে নামে। আর দুদলের সর্বশেষ দেখা হয়েছে ২০২১ সালের ৮ জুন বিশ্বকাপের বাছাইপর্বের ম্যাচে। এখন পর্যন্ত একে অপরের বিপক্ষে মোট ৪০টি ম্যাচে মাঠে নেমেছে আর্জেন্টিনা-কলম্বিয়া। এর মধ্যে ২৩টি ম্যাচ জিতে নিয়েছে দুইবারের বিশ্বকাপজয়ী দলটি। আর কলম্বিয়া জয় পেয়েছে ৯টি ম্যাচে। বাকি ৮টি ম্যাচ ড্র।

এখন পর্যন্ত কোপা আমেরিকায় মোট ১৫বার মুখোমুখি হয়েছে আর্জেন্টিনা ও কলম্বিয়া। স্বাভাবিকভাবেই জয়ের হারে এগিয়ে রয়েছে মেসিরা। মোট ১০টি ম্যাচ জেতার পাশাপাশি হেরেছে মাত্র তিনটিতে। আর বাকি দুই ম্যাচ ড্র হয়েছে।

কোপায় কলম্বিয়ার বিপক্ষে আর্জেন্টিনার সবচেয়ে বড় জয় ৯-১ গোল ব্যবধানে। দুদলের মধ্যকার প্রথম মোকাবেলা ছিল এটি। এছাড়াও ৮-০ গোলে এবং ৬-০ গোল ব্যবধানে জয়ের নজিরও রয়েছে ম্যারাডোনার উত্তরসূরীদের। এদিকে দুইবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের বিপক্ষে মোটে তিনটি ম্যাচে জয় পাওয়া কলম্বিয়ার সবচেয়ে বড় জয় ৩-০ গোলে, ১৯৯৯ সালের ৪ জুলাই কোপার ম্যাচে।

ধারে ভারে পরিসংখ্যানে সব দিক থেকেই এগিয়ে রয়েছে আর্জেন্টিনা। এবার মাঠের খেলায় প্রমাণ করার পালা মেসিদের। সেমিফাইনালে আর্জেন্টিনাকে সমর্থন জানিয়েছেন ব্রাজিলের নেইমার। তার আশা, ফাইনালটা আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল হোক। শুধু নেইমার কেন, এমন চাওয়া এখন অনেকেরেই। নেইমাররা সে কথা রেখেছে ফাইনালে ওঠে, মেসিরা পারবে তো?