আর্জেন্টিনা থেকে কোপা আমেরিকা ব্রাজিলে

সংগ্রহীত

আর্জেন্টিনা থেকে কোপা আমেরিকা ব্রাজিলে

কলম্বিয়ার নাম কাটা পড়েছিল আগেই। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব বেড়ে যাওয়ায় শেষ মুহূর্তে বাদ পড়ে আর্জেন্টিনাও। ফলে শঙ্কায় পড়ে গিয়েছিল নির্ধারিত সময়ে কোপা আমেরিকা মাঠে গড়ানোর বিষয়টি। তবে অনিশ্চয়তার মেঘ কেটে গেছে। শতবর্ষী এই প্রতিযোগিতার এবারের আসরটি বসবে ব্রাজিলে।

দক্ষিণ আমেরিকার ফুটবল কনফেডারেশন কনমেবল সোমবার কোপা আমেরিকার স্বাগতিক হিসেবে ব্রাজিলের নাম জানায়। নির্ধারিত ১৩ জুনেই শুরু হবে আসরটি। শেষ হবে ১০ জুলাই।

কোপা আমেরিকার ১০৫ বছরের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো এবার দুই দেশের যৌথ আয়োজনে হওয়ার কথা ছিল টুর্নামেন্ট। কিন্তু কলম্বিয়ায় সরকারবিরোধী আন্দোলন চলায় গত ২০ মে তাদের নাম কাটা পড়ার পর আর্জেন্টিনা চেয়েছিল এককভাবে আয়োজন করতে। কিন্তু দেশটির করোনাভাইরাস পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় কনমেবল নতুন সিদ্ধান্ত নেয়।

এক বিবৃতিতে সোমবার কনমেবল জানায়, “কোপা আমেরিকা ২০২১ হবে ব্রাজিলে। শুরু এবং শেষের তারিখ নিশ্চিত হয়েছে। পরবর্তীতে আয়োজক শহর এবং ম্যাচগুলোর বিস্তারিত জানিয়ে নেওয়া হবে।”

আর্জেন্টিনাকে আয়োজক থেকে বাদ দেওয়ার পর ২৪ ঘণ্টারও কম সময়ের মধ্যে ব্রাজিলকে আয়োজক হিসেবে ঘোষণা করল কনমেবল। এর আগে পাঁচবার এ প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে ব্রাজিল এবং প্রতিবারই শিরোপা জিতেছে তারা।

কোভিড-১৯ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সাড়ে চার লাখের বেশি মানুষ মারা গেছে ব্রাজিলে। দৈনিক আক্রান্ত এবং মৃত্যুর দিক থেকে বর্তমান সময়ে দক্ষিণ আমেরিকার দেশগুলোর মধ্যে শীর্ষে এবং বিশ্বের হিসাবে দ্বিতীয়।

মূলত আর্থিক কারণেই টুর্নামেন্ট বাতিল বা স্থগিত করে দিতে অনীহা কনমেবলের। ২০১৯ সালে ব্রাজিলে হওয়া টুর্নামেন্ট থেকে আয় ছিল ১১.৮ কোটি ডলার, যা ছিল সংস্থাটির আয়ের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উৎস। এবারের আসরে অংশগ্রহণকারী প্রতিটি দলের পাওয়ার কথা অন্তত ৪০ লাখ ডলার করে, চ্যাম্পিয়ন দলের বাড়তি পুরস্কার ১ কোটি ডলার।