ইরানের বেশ কয়েকটি গণমাধ্যমের ওয়েবসাইট বন্ধ করলো যুক্তরাষ্ট্র

সংগ্রহীত

ইরানের বেশ কয়েকটি গণমাধ্যমের ওয়েবসাইট বন্ধ করলো যুক্তরাষ্ট্র

ইরানভিত্তিক ইংরেজি ভাষার নিউজ চ্যানেল প্রেস টিভি ও আরবি ভাষার নিউজ চ্যানেল আল-আলমসহ বেশ কয়েকটি টেলিভিশন চ্যানেলের ওয়েবসাইট বন্ধ করে দিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে বিবিসি।

জানা যায়, যুক্তরাষ্ট্রের বিচার মন্ত্রণালয় ইরানের পক্ষ থেকে পরিচালিত ৩০টির বেশি ওয়েবসাইট বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছে। যার মধ্যে ইরান থেকে আরবি ভাষায় প্রচারিত টেলিভিশন চ্যানেল আল-কাওসার এবং ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীদের পরিচালিত আল-মাসিরা টেলিভিশনের ওয়েবসাইটও রয়েছে। এসব ওয়েবসাইটে কেউ প্রবেশ করতে চাইলে তিনি মার্কিন বিচার মন্ত্রণালয় এবং ফেডারেল পুলিশ দপ্তর এফবিআইর সিল মারা তথ্যবিবরণী দেখতে পাচ্ছেন।

মার্কিন বিচার মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত মুখ না খুললেও মার্কিন প্রশাসনের ঘনিষ্ঠ এক সূত্রের বরাতে রয়টার্স জানায়, এ ব্যাপারে শিগগিরই একটি বিবৃতি প্রকাশ করা হবে।

২০১৫ সালে ছয় জাতি-গোষ্ঠীর সঙ্গে সই হওয়া চুক্তি থেকে ২০১৮ সালে যুক্তরাষ্ট্রকে একতরফাভাবে প্রত্যাহার করে নেন সাবেক প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। সঙ্গে তেহরানের ওপর আগের সব ধরনের নিষেধাজ্ঞা বহাল করেন। তবে আগের চুক্তি বাতিল করে নতুন করে চুক্তি চায় ওয়াশিংটন। তেহরান তা না মানায় গত চার বছর ধরে একের পর এক নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে ট্রাম্প প্রশাসন এবং এখনও তা অব্যাহত আছে।

মার্কিন নির্বাচনে পরাজয়ের পর তেহরানের পারমাণবিক স্থাপনায় হামলার পরিকল্পনা করেছিলেন ট্রাম্প। তবে সিনিয়র উপদেষ্টাদের বিরোধিতার মুখে তা থেকে বিরত হন। এরপরই ইরানি শীর্ষ পরমাণু বিজ্ঞানী মোহসেন ফাখরিজাদে হত্যাকাণ্ডে ইসরাইলি গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদ জড়িত বলে অভিযোগ উঠেছে। বিদায়ের আগ মুহূর্তে ট্রাম্পের মদদে এটি ঘটানোর কথাও গুঞ্জন ওঠে।