ইসরায়েলে করোনায় দৈনিক মৃত্যু নেমে এসেছে শূন্যে

সংগৃহীত

ইসরায়েলে করোনায় দৈনিক মৃত্যু নেমে এসেছে শূন্যে

করোনাভাইরাসে দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যা শূন্যে নেমে এসেছে ইসরায়েলে। দেশজুড়ে দ্রুত টিকাদান কর্মসূচি গ্রহণের ফলে করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় এমন সফলতা দেখিয়েছে ইসরায়েল।

প্রায় ১০ মাস পর এমন পরিস্থিতি ইসরায়েলে। গত বছরের জুনের শেষে করোনায় দৈনিক মৃত্যু সর্বশেষ শূন্যে নেমে এসেছিল ইসরায়েলে। মহামারির প্রথম ধাক্কা সামাল দিতে আরোপিত লকডাউনের পর এমনটি ঘটলো।

এ বছরের জানুয়ারিতে সংক্রমণের মাত্রা সর্বোচ্চ সীমায় পৌঁছে ইসরায়েলে। এরপর সংক্রমণের মাত্রা কমতে থাকলে এক মাস পর লকডাউন কড়াকড়ি শিথিল করা শুরু করে দেশটির সরকার। পাশাপাশি দেশজুড়ে মানুষকে করোনার টিকা দেওয়া শুরু করে।

বিশ্বের মধ্যে ইসরায়েলে টিকাদানের হার সর্বোচ্চ। গত বৃহস্পতিবার ৫০ লাখ মানুষকে টিকা দেওয়ার মাইলফলক স্পর্শ করে দেশটি।

দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানায়, ৯০ লাখ জনসংখ্যার ৫৩ শতাংশের বেশি মানুষকে করোনার টিকার দুই ডোজই দেওয়া হয়েছে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, জনসংখ্যার বড় অংশের মধ্যে রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে পারলে সুরক্ষা তৈরি হয় এবং ভাইরাস সংক্রমণ বন্ধ হতে থাকে।

রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য জনসংখ্যার ৬৫ থেকে ৭০ শতাংশ মানুষকে টিকা দেওয়া প্রয়োজন বলে মনে করেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) বিশেষজ্ঞরা।