ওসি প্রদীপের পদোন্নতি নিয়ে লিগ্যাল নোটিশ

ওসি প্রদীপের পদোন্নতি নিয়ে লিগ্যাল নোটিশ
হাইকোর্টের নির্দেশনা না মেনে ওসি প্রদীপকে পদোন্নতি দেওয়া কেন আদালত অবমাননার শামিল নয়- তা জানতে চেয়ে লিগ্যাল নোটিশ দেওয়া হয়েছে।
স্বরাষ্ট্র সচিব ও আইজিপিসহ চারজনের কাছে এই নোটিশ পাঠিয়েছেন আইনজীবী জুলফিকার আলী জুনু। ৭২ ঘণ্টার মধ্যে নোটিশের জবাব দিতে বলা হয়েছে। অন্যথায় হাইকোর্টে রিট করা হবে বলেও জানান এ আইনজীবী।
নোটিশে আইনজীবী বলেন, ২০০১ সালে পেশাগত অসদাচরণের দায়ে টেকনাফ থানার তৎকালীন এসআই প্রদীপ কুমার দাশকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। এসময় তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলাও হয়। এ নিয়ে হাইকোর্টে একটি রিটও হয়। কিন্তু সেটা নিষ্পত্তি হওয়ার আগেই প্রদীপকে পরিদর্শক হিসেবে পদোন্নতি দেওয়া হয়।
গত ৩১ জুলাই রাতে টেকনাফের শামলাপুর তল্লাশি চৌকিতে পুলিশের গুলিতে নিহত হন অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান। এরপর গত ৫ আগস্ট কক্সবাজার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হত্যা মামলা করেন সিনহার বড় বোন শারমিন শাহরিয়ার ফেরদৌস। এতে ৯ জনকে আসামি করা হয়।
বাহারছড়া তদন্ত কেন্দ্রের পরিদর্শক লিয়াকত আলিকে ১ নম্বর এবং টেকনাফ থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশকে ২ নম্বর আসামি করা হয়।
মামলা হওয়ার পর ওসি প্রদীপসহ সাত পুলিশ সদস্য ৬ অগাস্ট আদালতে আত্মসমর্পণ করেন। এরপর প্রদীপকে সরকারি চাকরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। বর্তমানে তিনি কারাগারে রয়েছেন।