ওয়েলসকে বিধ্বস্ত করে শেষ আটে ডেনমার্ক

সংগ্রহীত

ওয়েলসকে বিধ্বস্ত করে শেষ আটে ডেনমার্ক

শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত প্রায় একক আধিপত্য দেখিয়ে ওয়েলসকে বড় ব্যবধানে হারালো ডেনমার্ক। এই জয়ে শেষ আটও নিশ্চিত হয়ে গেল ডেনিশদের।

এ-গ্রুপের দ্বিতীয় দল হিসেবে শেষ ষোলোয় আসা ওয়েলস বি-গ্রুপের দ্বিতীয় দল ডেনমার্কের বিপক্ষে নামে ইতালির কাছে গ্রুপের শেষ ম্যাচে পরাজিত হওয়া একাদশে তিনটি রদবদল নিয়ে। অন্যদিকে গ্রপের শেষ ম্যাচে রাশিয়াকে ৪-১ গোলে হারানো প্রথম একাদশে দু’টি বদল করে ডেনমার্ক।

খেলায় প্রথম আক্রমণ শানায় ডেনমার্ক। অষ্টম মিনিটের মাথায় ওয়েলসের পোস্ট লক্ষ্য করে শট নেন ডলবার্গ। শট লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। এরপর পাল্টা আক্রমণে দ্বাদশ মিনিটের মাথায় ফের ডেনমার্কের শেষ রক্ষণ ভেদ করার চেষ্টা করেন বেল। যদিও তার বাঁ-পায়ের শট মাঠের বাইরে চলে যায়। ১৮তম মিনিটে জেমসের শট প্রতিহত করেন ড্যানিশ গোলরক্ষক।

ম্যাচের ২৮তম মিনিটে এগিয়ে যায় ডেনমার্ক। ড্যামসগার্ডের পাস থেকে ওয়েলসের জালে বল জড়ান ক্যাসপার ডলবার্গ। হেনরিক লারসেনের পর দ্বিতীয় ডেনিশ ফুটবলার হিসেবে ইউরোর নকআউট পর্বের কোনো ম্যাচে দুই গোল করলেন তিনি। ১৯৯২ আসরে সেমি-ফাইনালে নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে এই কীর্তি গড়েছিলেন লারসেন।  ৩২ মিনিটে ডলবার্গের শট প্রতিহত করেন ওয়েলসের গোলরক্ষক ওয়ার্ড।

দ্বিতীয়ার্ধে আরও আক্রমণাত্মক খেলতে শুরু করে ডেনমার্ক। শুরুতেই ফের গোল করলেন ক্যাসপার ডলবার্গ। ৪৮তম মিনিটের মাথায় ওয়েলসের জালে দ্বিতীয়বার বল জড়ান তিনি। ৫৩তম মিনিটে গোলের চেষ্টায় মরিয়া গ্যারেথ বেল শট নেন ডেনমার্কের পোস্ট লক্ষ্য করে। কিন্তু শট লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। ৮১তম মিনিটে ব্রাথওয়েটের শটে ক্রসবারের উপর দিয়ে উড়ে যায় বল।

৮৮তম মিনিটে জেনসেনের পাস থেকে গোল করে জোয়াকিম মাহলে ব্যবধান ৩-০ করেন। এর ঠিক ২ মিনিট পরে লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন ওয়েলসের হ্যারি উইলসন। এরপর যোগ করা সময়ের ষষ্ঠ মিনিটে কর্নেলিউসেক পাস থেকে ওয়েলসের জালে বল জড়ান ব্রাথওয়েট।