করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা লক্ষাধিক ছাড়িয়ে গেল টালমাটাল ইতালি, জারি হচ্ছে নতুন অধ্যাদেশ

করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা লক্ষাধিক ছাড়িয়ে গেল টালমাটাল ইতালি, জারি হচ্ছে নতুন অধ্যাদেশ
ইতালিতে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা লক্ষাধিক ছাড়িয়েছে। সংক্রমণ রুখতে ১০ জানুয়ারি থেকে আরও কড়াকড়ি আরোপ করে জারি হচ্ছে নতুন অধ্যাদেশ। চলাচলে গ্রিনপাসের কড়াকড়িতে একদিনে রেকর্ডসংখ্যক ১৭ লাখ গ্রীন পাস ডাউনলোড হয়েছে দেশটিতে। এদিকে, জানুয়ারি থেকে স্কুল বন্ধের ঘোষণা আসতে পারে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

করোনায় টালমাটাল ইতালি। মোট জনসংখ্যার শতকরা ৭৮ ভাগ নাগরিককে দুই ডোজ টিকা দেয়া হলেও করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা প্রতিদিনই বাড়ছে। গেল দুই দিনে দেশটিতে নতুন করে লক্ষাধিক মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন ১৪৪ জন।

বিমান, বাস, ট্রেন এবং মেট্রোতে গ্রিনপাসের জন্য কড়াকড়ি আরোপ করায় মাত্র একদিনে রেকর্ড সংখ্যক ১৭ লাখ গ্রীন পাস ডাউনলোড হয়েছে। পানশালা, হোটেল, রেস্তারাঁয় গ্রীন পাস বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। ১০ জানুয়ারি থেকে গ্রীন পাসের পরিধি বাড়িয়ে নতুন অধ্যাদেশ জারি করবে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। নতুন করে জাদুঘর, জিমনেসিয়াম, সুইমিং পুলসহ আরও কিছু স্থানে চলাফেরার ক্ষেত্রে প্রয়োজন পড়বে গ্রীন পাসের।

এর আগে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানায়, আক্রান্তের সংখ্যা ৫০ হাজার ছাড়ালে জানুয়ারি থেকে স্কুল বন্ধ হতে পারে। তবে এখন পর্যন্ত কোনো ঘোষণা আসেনি। এরইমধ্যে স্কুল বন্ধের ঘোষণা আসতে পারে এমন খবরে উদ্বিগ্ন অভিভাবকরা।

এরইমধ্যে ইতালিতে করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের সংক্রমণ ঠেকাতে কঠোর অবস্থানে রয়েছে দেশটির সরকার। বুস্টার ডোজ গ্রহণের তাগিদ দিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বলছে, ১০ জানুয়ারি থেকে দ্বিতীয় ডোজ দেয়ার চার মাস পরেই নেয়া যাবে বুস্টার ডোজ।