করোনা সংক্রমণ রোধে থাইল্যান্ডে কারফিউ জারি

সংগ্রহীত

করোনা সংক্রমণ রোধে থাইল্যান্ডে কারফিউ জারি

সারা বিশ্বেই তাণ্ডব চালাচ্ছে করোনা। কিছুতেই নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসা যাচ্ছে না প্রাণঘাতি এই অদৃশ্য ভাইরাসকে। তাই করোনা নিয়ন্ত্রণে এবার কারফিউ জারি করেছে থাইল্যান্ড। দেশটির রাজধানী ব্যাংককসহ আরও ১০টি প্রদেশে রাত্রিকালীন কারফিউ জারি করা হয়েছে।

বার্তাসংস্থা রয়টার্সকে শুক্রবার (৯ জুলাই) দেশটির সরকারি কোভিড টাস্কফোর্সের মুখপাত্র আপিসামাই শ্রীরঙ্গসান এ তথ্য জানিয়েছেন।

শ্রীরঙ্গসান বলেন, দেশের ১০টি প্রদেশের সব এলাকার বাসিন্দাদের রাত ৯টা থেকে ভোর ৪টা পর্যন্ত অত্যন্ত জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে বের হতে নিষেধ করা হয়েছে। একই সঙ্গে দোকানপাট বন্ধ ও মানুষের ভ্রমণ বিষয়ক বিধিনিষেধও অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে আদেশে।

তিনি আরও বলেন, সরকারি আদেশ অনুযায়ী, নিত্যপ্রয়োজনী পণ্যের দোকান, ওষুধের দোকান, ব্যাংক ও ইলেকট্রিক স্টোর ছাড়া দেশের সব শপিংমল, বিউটি পার্লার, স্পা-সেলুন-ম্যাসাজ সেন্টার সোমবার থেকে বন্ধ থাকবে।

 

শ্রীরঙ্গসান আরও বলেন, থাইল্যান্ডের মানুষ, যাদের সর্বোচ্চ বিধিনিষেধের মধ্যে দিয়ে যেতে হবে, তাদের এই অসুবিধার জন্য আমরা ক্ষমাপ্রার্থী। কিন্তু এই পদক্ষেপ করোনাকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে বেশ কার্যকর ফল দেবে। থাইল্যান্ড অবশ্যই জয়ী হবে।

শুক্রবার দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৯ হাজার ২৭৬ জন এবং এ রোগে মারা গেছেন ৭২ জন। মহামারি শুরুর পর থেকে থাইল্যান্ডে এ পর্যন্ত করোনায় একদিনে সর্বোচ্চসংখ্যক আক্রান্ত ও মৃত্যু হয়েছে শুক্রবার।