কানাডায় অনুমোদন পেল: করোনার ওষুধ মুখে খাওয়ার

কানাডায় অনুমোদন পেল: করোনার ওষুধ মুখে খাওয়ার
মহামারি করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) সংক্রমণের বৃদ্ধিতে ফাইজার কোম্পানির অ্যান্টিভাইরাল কোভিড-১৯ পিল ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে কানাডা। দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী পোলান্ড বলেছেন, করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের প্রভাবে পঞ্চম ঢেউয়ের মুখোমুখি হতে যাচ্ছি।

১ ফেব্রুয়ারি নতুন চান্দ্র বর্ষ উদযাপনকে ঘিরে লাখ লাখ লোক চীনের বিভিন্ন স্থানে ভ্রমণ করে বেড়াচ্ছেন। এ প্রেক্ষাপটে বেশ কয়েকটি শহরে অতিরিক্ত সতর্কবার্তা দেওয়া হয়েছে।

করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্টটি অধিকতর সংক্রামক হওয়ায় বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সরকারপ্রধানরা এরইমধ্যে কঠোর বিধিনিষেধ জারি করেছে। এর মধ্যে যারা সংক্রমণ রোধে কোভিড-১৯ এর ভ্যাকসিন নেননি; তাদেরকে গণপরিবহনে চলাচলে নিষিদ্ধ করেছে ফিলিপাইন।

করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যুর পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্যানুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ২৩ হাজার ৫৮৬ জন। এ সময়ে মত্যু হয়েছে ১৪৯ জনের।

গত বছররের ২৩ ডিসেম্বর যুক্তরাষ্ট্র ‍গুরুতর অসুস্থতার ঝুঁকিতে থাকা ১২ বছর বয়সী ও তার বেশি বয়সীদের ক্ষেত্রে ফাইজার কোম্পানির অ্যান্টিভাইরাল কোভিড-১৯ পিল ব্যবহার অনুমোদন দেয়।

ফাইজারের অ্যান্টিভাইরাল পিল ‘প্যাক্সলোভিড’ গুরুতর অসুস্থতার উচ্চ ঝুঁকিতে থাকা রোগীদের হাসপাতালে ভর্তি করা ও মৃত্যু প্রতিরোধে প্রায় ৯০ শতাংশ কার্যকর বলে কোম্পানিটির ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের তথ্য থেকে জানা গেছে।

ফাইজার বলেছে, গবেষণাগার থেকে পাওয়া সাম্প্রতিক তথ্যে ওষুধটি ওমিক্রনের বিরুদ্ধেও এর কার্যকারিতা ধরে রাখে এমন ধারণা পাওয়া গেছে।