কুমিল্লায় অফিসে ঢুকে কাউন্সিলর হত্যা, এখনও মামলা হয়নি

কুমিল্লায় অফিসে ঢুকে কাউন্সিলর হত্যা, এখনও মামলা হয়নি

কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের ১৭ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সৈয়দ মো. সোহেলকে (৫২) তার কার্যালয়ে ঢুকে গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। গুলিতে তার সহযোগী ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা হরিপদও নিহত হন। এমন বর্বরোচিত হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় এখনো কোন মামলা হয়নি বলে জানিয়েছে পুলিশ। এছাড়া পুলিশ এখনো পর্যন্ত কাউকে আটকও করতে পারেনি।

এ বিষয়ে মঙ্গলবার সকালে কুমিল্লা কোতয়ালী মডেল থানার দায়িত্বরত কর্মকর্তা (ডিউটি অফিসার) উপ-পরিদর্শক চিরঞ্জিব জানিয়েছেন, হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

এদিকে গতকাল সোমবার যেখানে কাউন্সিলর সোহেলকে হত্যা করা হয়। সেখানে সকাল থেকে শত শত মানুষের ভীড় দেখা গেছে। ওই এলাকায় পুলিশ সতর্ক অবস্থায় রয়েছে।

 

কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. মহিউদ্দিন জানান, ‘কাউন্সিলর সোহেলের মাথায়, বুকের ডান পাশে, বাম চোখের নিচেসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে ৯টি গুলি লাগে। সন্ধ্যার আগে যখন কাউন্সিলর সোহেলকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয় তখন প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়। আমরা কুমিল্লা মেডিকেল কলেজে হাসপাতালের একটি মেডিকেল টিম কাউন্সিলরসহ তাদেরকে অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে যাই। পরে তাকে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়। হরিপদ সাহাও চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। তার পেটে ১টি গুলি লাগে। আমরা তাদের রাত ৮টায় মৃত ঘোষণা করি।’

বর্তমানে মরদেহ কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।