কুমিল্লায় দুই দিনে তিন মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণ

কুমিল্লায় দুই দিনে তিন মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণ

দুই দিনে একটি মাদ্রাসার ১০ বছরের তিন শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ধর্ষণের শিকার তিন শিশু সম্পর্কে চাচাতো বোন। কুমিল্লার বরুড়া উপজেলায় এই ঘটনা ঘটে। ধর্ষণের শিকার তিন শিশু উপজেলার ভবানীপুর ইউনিয়নের নরিন্দ গ্রামের বাসিন্দা।

ধর্ষণের শিকার শিশুদের স্বজনদের বরাত দিয়ে স্থানীয় ইউনিয়ন চেয়ারম্যান খলিলুর রহমান বলেন, নরিন্দ গ্রামের মিজবাহুল উলুম মহিলা ও নূরানী মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা মাঠে প্রতিদিন খেলাধুলা করতো। মাদ্রাসাটি স্থানীয় আলী আজ্জমের ছেলে আলী আকবরের বাড়ির থেকে তিনশ’ গজ দূরে। তাই মাদ্রাসা মাঠ থেকে প্রতিদিন তারা ওই বাড়ির আশপাশে খেলতে যেতো। অভিযুক্ত আলী আকবর তার বাড়িতে দিনের বেশিরভাগ সময় একা থাকতো। গত ১৯ ও ২০ মার্চও প্রতিদিনকার মতো শিশুরা মাঠে খেলতে নামে ও তার বাড়ির আশপাশে ঘুরতে যায়। এসময় তাদেরকে চকলেট ও ১০ টাকার প্রলোভন দেখিয়ে নিজ ঘরে নিয়ে ধর্ষণ  করে।

ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত আলী আকবর পলাতক রয়েছে। নির্যাতনের শিকার শিশুর পরিবারের সদস্যরা দায়ী ব্যক্তির বিরুদ্ধে  সুষ্ঠু তদন্ত ও শাস্তি দাবি করেন।

এ বিষয় বরুড়া থানার ওসি ইকবাল বাহার মজুমদার বলেন, তিন শিশুকে ধর্ষণের ঘটনায় দুইটি মামলা প্রক্রিয়াধীন। অভিযুক্তকে আইনের আওতায় আনার চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।