ক্ষমতাসীন দল বঙ্গবন্ধুর আওয়ামী লীগ থেকে যোজন যোজন দূরে: সাইফুল হক

সংগ্রহীত

ক্ষমতাসীন দল বঙ্গবন্ধুর আওয়ামী লীগ থেকে যোজন যোজন দূরে: সাইফুল হক

এমপি-মন্ত্রিত্বের লোভে শাসকশ্রেনীর কাছে তারকা বামপন্থীদের আত্নসমর্পনে জনগন বামধারার প্রতি বিশ্বাস হারায় বারবার। আত্নসমালোচনায় এমনটাই বলছেন বামনেতা, বিপ্লবী ওয়াকার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক।

বলছেন, ভোটের অধিকার, ধর্ষণের সাজা, পরিবেশ সংরক্ষণ এসব ইস্যুতে আন্দোলন জমলেও শাসক দলের প্রতি কোন কোন নেতার অরাজনৈতিক আকর্ষণ দাবি আদায়ে বাধা সৃষ্টি করে।

ধর্ষণ বিরোধী আন্দোলণে বাম গণতান্ত্রিক জোট, তাদের শরীকরা। এভাবেই এগিয়ে ছিলো সুন্দরবন রক্ষার আন্দোলন। বাংলাদেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে অনেক তরুন স্বেচ্ছায় টিশার্টে, বুকের উপর রাখে চে গুয়েভারা, ফিদেল কাস্ট্রোর প্রতিকৃতি।

বিপ্লবী সুভাস বোসের অন্তর্ধান নিয়ে যেসব বই প্রকাশ হয়, এখনও তার কোন কোনটা বেস্ট সেলারের তালিকাভুক্ত। তবুও বামধারার এমন অবস্থা কেনো ?

জনপ্রিয় আন্দোলনে রাজপথে এগোলেও দাবি আদায়ে শেষ পর্যন্ত বামজোট কেনো সফল হয় না- প্রশ্ন ছিলো এই বাম নেতার প্রতি। জবাবে সাইফুল হক বলেন, কোন কোন নেতার শাসক শ্রেনীর প্রতি মায়া মমতা বেশী।

তিনি মনে করেন, এই মুহুর্তে ক্ষমতাসীন দল বঙ্গবন্ধুর আওয়ামী লীগ থেকে যোজন যোজন দূরে অবস্থান করছে।
আওয়ামী লীগ এখন মানুষের প্রতিপক্ষ।

অতিতের ভূল শোধরাতে পারলে বিএনপির সঙ্গেও সরকার বিরোধী ঐক্য হতে পারে বলেও মনে করেন সাইফুল হক। জনসম্পৃক্ততার কারণে বামগণতান্ত্রিক জোটের প্রতি জনগনের আস্থা দিন দিন বাড়ছে বলেই মনে করেন সাইফলু হক।