ক্ষমা চাইলেন হাসান আলি সমর্থকদের কাছে

 

ক্ষমা চাইলেন হাসান আলি সমর্থকদের কাছে

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার কাছে হারার পর থেকেই নেটমাধ্যমসহ সবখানেই সমালোচিত হচ্ছেন পাকিস্তানের বোলার হাসান আলি। সেমিফাইনালে ওই ম্যাচ জেতানোর মূল কারিগর ম্যাথু ওয়েডের গুরুত্বপূর্ণ একটি ক্যাচ ফেলেছিলেন তিনি। তার পরেই নেটমাধ্যমে তার উদ্দেশে ভেসে এসেছে কটূক্তি। এ বিষয়ে দুঃখ্য প্রকাশ করে শনিবার টুইটারে একটি বিবৃতি দিয়েছেন হাসান।

শনিবার হাসান আলি টুইটে লেখেন, ‘জানি আমার পারফরম্যান্সের কারণে আপনারা প্রত্যেকে ব্যথিত। আমি আপনাদের প্রত্যাশা পূরণ করতে পারিনি। কিন্তু আমার থেকে বেশি দুঃখে আর কেউ নেই। আমার থেকে প্রত্যাশা করা বন্ধ করবেন না। সর্বোচ্চ পর্যায়ে পাকিস্তান ক্রিকেটকে যতদিন পারব সেবা করে যেতে চাই। তাই ফের কঠোর পরিশ্রমে ফিরেছি। এই সময়ে নিজেকে আরও শক্তিশালী করে তুলতে চাই। আপনাদের বার্তা, টুইট, পোস্ট, ফোন এবং প্রার্থনার জন্য ধন্যবাদ। এটাই আমার সব থেকে বেশি দরকার ছিল’।

তবে এর কিছুক্ষণ পরেই সেই বার্তা রিটুইট করে পাকিস্তান দলের আর এক সদস্য ফখর জামান লেখেন, ‘তুমি একজন চ্যাম্পিয়ন, বন্ধু। তোমার মতো পরিশ্রম, জেদ এবং দৃঢ়তা দেখাতে পারে, এমন ক্রিকেটার এই পৃথিবীতে খুব বেশি নেই। মাথা উঁচু রাখো। আমরা প্রত্যেকে তোমাকে নিয়ে গর্বিত’।

বৃহস্পতিবার সেমিফাইনালে শাহিন আফ্রিদির বলে ম্যাথু ওয়েডের ক্যাচ ফেলে দেন হাসান আলি। তার পরের তিনটি বলে ৩ ছক্কা মেরে অস্ট্রেলিয়াকে ফাইনালে তুলে দেন ওয়েড। এরপরেই শুরু হয়ে যায় হাসানকে খলনায়ক বানানোর পালা।