খুব কষ্টে আছেন পরীমনি

খুব কষ্টে আছেন পরীমনি

ঢাকাই সিনেমার আলোচিত অভিনেত্রী পরীমনি। বেশ কিছু দর্শকপ্রিয় ছবি উপহার দিয়েছে সিনেমা প্রেমীদের। এখনও দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন সিনেমা পাড়া। তবে কষ্টে আছেন এই ঢালিউড নায়িকা। সোশ্যাল মিডিয়ায় তার ভক্তদের মাঝে শেয়ার করলেন একবুক চাপা কষ্ট।

নিজের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে একটি স্টাট্যাস দিয়েছেন তিনি। স্ট্যাটাসে পরীমনি লিখেছেন, ‘মাঝে মাঝেই আমার খুব পাখি হতে ইচ্ছে করে’। এই যেমন আজ সকাল থেকে ভীষণ ইচ্ছে করছে পাখি হয়ে যেতে। ইশ্ কী দারুণ হতো ব্যাপারটা!

সকাল নয়টা থেকে রেগুলার চেকআপে এই ডক্টর থেকে ঐ ডক্টর এর চেম্বারে …আমার শহর থেকে শত শত মাইল দুরের শহর কলকাতায়। কাল সকাল থেকে করতে হবে আরো একগাদা টেস্ট। পাখি হলে ঠিক সন্ধ্যার আগে আগে উড়াল দিতাম আমি। কোনো কিছুই আমাকে বেঁধে রাখতে পারতো না। ঘন্টাখানেক নীল আকাশে ডানা ঝাপটে টুপ করে হাজির হতাম আপনাদের মাঝে। স্ফুলিঙ্গের প্রিমিয়ারে!

একসঙ্গে সবাই মিলে দেখতাম আমাদের স্ফুলিঙ্গ টিমের এতো মায়া এতো যত্নে বানানো গল্পটা। প্রিয় মানুষদের সাথে সেলফি, সিনেপ্লেক্সের পপকর্নের সাথে কফি, স্পট লাইটে দাঁড়িয়ে সাংবাদিকদের সাথে এক এর পর এক ইন্টারভিউ সেশন আর এতো গুণী একজন পরিচালকের দোয়া। সব কিছু মিস করবো আমি আজ। শুধু ইচ্ছে হলেই পাখি হয়ে যেতে না পারার অপারগতায়। আজ শুধু দুটো ডানা নেই বলে,হুম্ ।আমি উড়ে যেতে পারলাম না তবু আমার মনটা ঠিক সন্ধ্যা নাগাদ পাখি হয়ে উড়াল দেবে আপনাদের কাছে। পৌঁছে যাবে স্ফুলিঙ্গের প্রিমিয়ারে। একটু লক্ষ্য করলেই আমাকে দেখতে পাবেন আপনারা। ওই খুব তাড়াহুড়ো করে সিনেপ্লেক্সের এক কোনায় গিয়ে বসলো যে পাখিটা ওটাই তো আমি।আপনাদের পরী।

জানা গেছে, গেলো ২২ মার্চ ঢাকা থেকে কলকাতায় গেছেন পরীমনি। নিজের কিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষা জন্য এই কলকাতার যাত্রা। করোনা পরিস্থিতি যখন ঊর্ধ্বমুখী ঠিক সেই সময়ে এই ছবিটি আগামী ২৬ মার্চ সিনেমা হলে মুক্তি পাচ্ছে।