গ্রেফতার আসামিকে ছিনিয়ে আনতে গ্রেফতার ২

গ্রেফতার আসামিকে ছিনিয়ে আনতে গ্রেফতার ২
চট্টগ্রামের পটিয়া থেকে আসামি মো. বাবরকে গ্রেফতারের পর ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টার অভিযোগে তার আরও দুই সহযোগীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। এ সময় একটি বিদেশি পিস্তল, ১টি এলজি, ১টি থ্রি-কোয়ার্টারগান এবং ১২ রাউন্ড গুলি জব্দ করা হয়েছে।
শনিবার (২৩ এপ্রিল) র‌্যাব-৭ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. নুরুল আবছার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
এ বিষয়ে র‌্যাব-৭ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. নুরুল আবছার বলেন, মো. বাবর এলাকায় সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজি, টেন্ডারবাজি এবং ডাকাতিসহ বিভিন্ন অপকর্মের সঙ্গে জড়িত।
তিনি আরও বলেন, র‌্যাব বিশেষ সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারে, পটিয়া এলাকায় সন্ত্রাসী ইয়ার মো. বাবরের অপকর্মের কারণে এলাকার মানুষ আতঙ্কে রয়েছে। এ ছাড়া তার কাছে বিপুল পরিমাণ দেশি-বিদেশি আগ্নেয়াস্ত্র ও গোলাবারুদ রয়েছে। এরপরই তাকে গ্রেফতারের জন্য ব্যাপক গোয়েন্দা নজরদারি অব্যাহত রাখে। এরই ধারাবাহিকতায় শুক্রবার পটিয়ার গৈরালারটেক বাজার এলাকায় অভিযান চালিয়ে ১টি এলজি এবং ৯ রাউন্ড গুলি উদ্ধারসহ তাকে আটক করা হয়েছে। ইয়ার মো. বাবর চট্টগ্রাম জেলার পটিয়া উপজেলা সদরের ৪নং ওয়ার্ডের সদস্য।
র‌্যাবের এ কর্মকর্তা বলেন, বাবরকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, নাইখাইন গ্রামে তার বসতঘরে আরও অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্র ও গুলি আছে। এ তথ্যের ভিত্তিতে তাকে নিয়ে নাইখাইন গ্রামে যাওয়ার সময় গৈরালারটেক এলাকায় আসামি ইয়ার মো. বাবর চিৎকার শুরু করে। তখন তার অন্য সহযোগী মো. মহিউদ্দিন (২৯) ও আবদুল কাদের চৌধুরীসহ আরও ৫-৬ জন অজ্ঞাতনামা লোক এসে বাবরকে ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে। এ সময় সন্ত্রাসীদের ছোড়া ইটপাটকেলের আঘাতে এক র‌্যাব সদস্য আহত হন। পরে গৈরালারটেক বাজার থেকে মো. বাবরের সহযোগী মো. মহিউদ্দিন ও আবদুল কাদের চৌধুরীকে গ্রেফতার করা হয়।