জবি সংরক্ষিত বনাঞ্চলে আগুন, মারা গেছে বন্যপ্রাণীরা

সংগ্রহীত

জবি সংরক্ষিত বনাঞ্চলে আগুন, মারা গেছে বন্যপ্রাণীরা

বুধবার বেলা ১২টায় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র ও মীর মশাররফ হোসেন হলের মধ্যকার সংরক্ষিত বনাঞ্চলে আগুন লাগে। দুপুর ২টার দিকে ঘটনাস্থলে ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট এসে আধা ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। কিভাবে আগুন লেগেছে তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে আগুনে বিশাল এলাকা পুড়ে গেছে। 

বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তা কর্মকর্তা জেফরুল হাসান চৌধুরী জানান, ‘ আগুনের ভয়াবহতা দেখে আমরা ফায়ার সার্ভিসকে জানাই। পরে ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট ঘটনাস্থলে এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। আগুনের উৎস সম্পর্কে আমরা এখনো নিশ্চিত নই। এটা কোনো দুষ্কৃতিকারীদের কাজ, অথবা বৈদ্যুতিক সর্ট সার্কিটেও আগুনের সূত্রপাত হতে পারে।’

ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার মাহফুজুর রহমান জানান, ‘আগুন লাগার বিষয়টি জানার পরে আমরা ঘটনাস্থলে এসে আধা ঘণ্টার চেষ্টায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছি। এতে আমাদের দুটি ইউনিট কাজ করেছে।’

বন্যপ্রাণী বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বছরের এ সময়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের সংরক্ষিত এ বনাঞ্চলে ঝরা পাতার নিচে টিকটিকি, ব্যাঙ, গিরগিটিসহ নানা কীটপতঙ্গ আশ্রয় নেয়। এ ছাড়া সেখানে বাগডাস, শেয়াল, বনবিড়াল, গন্ধগোকুল ও মেছোবিড়ালের মতো নিশাচর প্রাণীরাও থাকে। তাই এ ধরণের আগুনে পরিবেশের মারাত্মক ক্ষতি হয়।

তবে অভিযোগ রয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা ঝোপঝাড় পরিষ্কারের পরিবর্তে তাতে আগুন লাগিয়ে দেয়। বিশ্ববিদ্যালয় লকডাউন থাকায় বুধবারের আগুনের ঘটনার সঙ্গে এমন সম্পর্ক নেই বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্টরা