জর্জ ফ্লয়েড হত্যা: সাড়ে ২২ বছর কারাদণ্ড সেই পুলিশ কর্মকর্তার

সংগ্রহীত

জর্জ ফ্লয়েড হত্যা: সাড়ে ২২ বছর কারাদণ্ড সেই পুলিশ কর্মকর্তার

গত বছর কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েডকে (৪৬) হত্যার দায়ে যুক্তরাষ্ট্রের মিনিয়াপোলিস শহরের বরখাস্ত শ্বেতাঙ্গ পুলিশ কর্মকর্তা ডেনেক চৌভিনকে (৪৫) ২২ বছর ৬ মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। শুক্রবার মার্কিন আদালত এই রায় ঘোষণা করেন। এই রায়কে ঐতিহাসিক রায় হিসেবে উল্লেখ করেছেন অনেকে। আদালতের ঘোষণায় স্বাগত জানিয়েছে ফ্লয়েডের পরিবার। খবর রয়টার্সের।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ৪৫ বছর বয়সী চৌভিন গত এপ্রিলে দোষী প্রমাণিত হন। চৌভিনের বিরুদ্ধে আনা তিনটি অভিযোগই আদালতে প্রমাণিত হয়। তার বিরুদ্ধে অভিযোগগুলো ছিল ‘সেকেন্ড ডিগ্রি’ (অনিচ্ছাকৃত খুন), ‘থার্ড ডিগ্রি’ (খুন) এবং ‘সেকেন্ড ডিগ্রি’ (নরহত্যা)।

ওই সময় আদালত বলেছিলেন, পরবর্তী আট সপ্তাহের মধ্যে চৌভিনের কারাদণ্ডাদেশ ঘোষণা করা হবে। সেই রায় ঘোষণা করা হলো শুক্রবার।

তবে রায়ে হতাশা প্রকাশ করেছেন মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের অ্যাটর্নি জেনারেল কেইথ এলিসন। তিনি বলেন, চৌভিনকে যে সাজা দেওয়া হয়েছে তা যথেষ্ট নয়।

 

গত বছরের মে মাসে টেক্সাস অঙ্গরাজ্যের হিউস্টনের বাসিন্দা জর্জ ফ্লয়েডকে গ্রেপ্তার করে মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের মিনিয়াপোলিস শহরের পুলিশ। গ্রেপ্তারে পর মিনিয়াপলিসের রাস্তায় ফ্লয়েডের ঘাড়ে ৯ মিনিটেরও বেশি সময় ধরে হাঁটু চেপে বসেছিলেন ডেরেক চৌভিন।

শ্বাস নিতে না পেরে মারা যান ফ্লয়েড। সেই ভিডিওটি ব্যাপকহারে ছড়িয়ে পড়লে বর্ণবাদ এবং পুলিশদের দ্বারা অত্যধিক শক্তি প্রয়োগের বিরুদ্ধে বিশ্বব্যাপী বিক্ষোভের সৃষ্টি হয়। জর্জ ফ্লয়েড মিনিয়াপোলিস শহরের একটি রেস্তোরাঁয় নিরাপত্তাকর্মী হিসেবে কাজ করতেন।