জামালপুরের দর্শকদের জন্য অবশেষে আসছে সুখবর

জামালপুরের দর্শকদের জন্য অবশেষে আসছে সুখবর

সরকারি অনুদানের সিনেমা ‘গলুই’। ঈদ উপলক্ষে দেশের প্রায় ৩০টি সিনেমা হলে এটি মুক্তি পেয়েছে। শাকিব খান ও পূজা চেরি অভিনীত সিনেমাটি জামালপুরের জেলা প্রশাসক (ডিসি) মুর্শেদা জামানের বাধার কারণে আপাতত সেখানকার কয়েকটি স্থানে বন্ধ আছে এর প্রদর্শনী। বিষয়টি নিয়ে গতকাল সোমবার অনলাইন-এ ‘‘‘গলুই’ সিনেমার প্রদর্শনী বন্ধ করে দিলেন ডিসি’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়।

এরপর দেশের অন্যান্য সংবাদ মাধ্যমগুলোও প্রদর্শনী বন্ধের সংবাদ ফলাও করে প্রকাশ করে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতেও শুরু হয় শাকিব ভক্তদের আন্দোলনের হুঁশিয়ারি। অবশেষে জামালপুরে ‘গলুই’ দর্শকদের জন্য আসছে সুখবর। মঙ্গলবার বিকেলেই এ নিয়ে তথ্য মন্ত্রণালয় থেকে একটি অনুমতিপত্র দেওয়া হবে বলে নিশ্চিত করেছে একটি ঘনিষ্টসূত্র।

নাম না প্রকাশের শর্তে সূত্রটি জানায়, আজ বিকেলে মন্ত্রণালয় থেকে একটি অনুমতিপত্র দেওয়া হবে জামালপুরের জেলা প্রশাসক বরাবর। সেখানে সিনেমাটি প্রদর্শনের অনুমতি দেওয়ার কথা উল্লেখ থাকবে এবং সরকারি অনুদানের ‘গলুই’ যাতে সুন্দরভাবে প্রদর্শিত হয়- সে বিষয়টিও চিঠিতে বলা থাকবে।

বিষয়টি নিয়ে ‘গলুই’র পরিচালক এসএ হক অলিকের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি অনলাইনকে বলেন, ‘বিষয়টি বিভিন্ন জায়গায় আমরা দৌড়ঝাঁপ করেছি। কোনো সুরাহা না পেয়ে মন্ত্রণালয়কে জানিয়েছি। আজ সেখান থেকে একটি সিদ্ধান্ত দেওয়া হবে। কি সিদ্ধান্ত আসবে তা আমার জানা নেই।’

তিনি আরও বলেন, ‘এটি সরকারি অনুদানের একটি ছবি। আর এখানে গ্রাম-বাংলার ঐতিহ্য তুলে ধরা হয়েছে। তাই আমি মনে করি, ছবিটি সবার দেখা উচিত। আর মন্ত্রণালয় থেকেও এটি যেন ভালোভাবে প্রচার হয় সে বিষয়ে ইতিবাচক সিদ্ধান্ত দেওয়ার আশা করছি।’

উল্লেখ্য, ‘গলুই’ ২০২০-২১ অর্থ বছরে সরকারি অনুদান পায়। সিনেমায় শাকিব-পূজার পাশাপাশি আরও অভিনয় করছেন আজিজুল হাকিম, সমু চৌধুরী, ঝুনা চৌধুরী প্রমুখ।

নৌকার গলুই থেকেই সিনেমার নামকরণ করা হয়েছে ‘গলুই’। এটি যেহেতু নৌকার গুরুত্বপূর্ণ অংশ, তাই এ গলুইয়ের সঙ্গে মানুষের জীবন, সম্পর্ক, পরিবার, রাষ্ট্রকে মিলিয়ে তৈরি করা হয়েছে চিত্রনাট্য। সিনেমায় শাকিবের চরিত্রের নাম লালু আর পূজার চরিত্রের নাম মালা। দুজনেই বেড়ে উঠেছেন একই এলাকায়।