টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে তামিমের খেলা অনিশ্চিত

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে তামিমের খেলা অনিশ্চিত
প্রায় দেড় বছর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত সংস্করণ টি-টোয়েন্টি থেকে দূরে বাংলাদেশ দলের অন্যতম ব্যাটিং ভরসা তামিম ইকবাল খান। ইনজুরির কাছে হার মেনে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ ও সদ্য শেষ হওয়া অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ঘরের মাঠেও খেলতে পারেননি তিনি।
আর তাই এখন প্রশ্ন উঠছে, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে ইনজুরি থেকে পুরোপুরি সেরে উঠবেন তো বাংলাদেশের বিশ্বস্ত ওপেনার তামিম ইকবাল! থাকবেন তো বিশ্বকাপের চূড়ান্ত স্কোয়াডে? বিশ্বকাপের আগে ফিট হলেও নিজেকে কতটুকু প্রস্তুত করতে পারবেন? তাইতো এখনই তামিমের বিকল্প ভাবা শুরু করে দিয়েছে টিম ম্যানেজমেন্ট। যদিও প্রধান নির্বাচক বলছেন এই ড্যাশিং ওপেনারের জন্য শেষ পর্যন্ত অপেক্ষা করবেন তারা।

টি-টোয়েন্টির ধুম ধারাক্কার ক্রিকেটেও তার স্ট্রাইক রেট ১১৭। গড় ২৪। তবুও দেশ সেরা ওপেনার তো বটেই এই ফরম্যাটে টাইগারদের সেরা ব্যাটসম্যানদের একজন তামিম ইকবাল। ক’দিন আগেও ছিলেন বাংলাদেশের হয়ে টি-টোয়েন্টির সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক। তবে সবশেষ অস্ট্রেলিয়া সিরিজে সেই মসনদটা হারিয়েছেন বন্ধু সাকিব আল হাসানের কাছে।

এর একটা কারণও আছে বৈকি। টাইগারদের হয়ে এই ফরম্যাটে ২০২০ সালের মার্চের পর আর মাঠে নামা হয়নি তার। মিস করেছেন ১১টি আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি। কখনো ব্যক্তিগত কারণ, কখনো বাঁধ সেধেছে ইনজুরি। তাই তো বড় প্রশ্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে তামিমের সার্ভিস পাবে তো টিম টাইগার্স!

বিসিবি চিকিৎসক থেকে নির্বাচক। বোর্ড কর্মকর্তা কিংবা স্বয়ং তামিম নিজে। এই প্রশ্নের উত্তর নেই কারো কাছেই। তবে গেল কয়েক দিনে সংবাদমাধ্যমে টিম ম্যানেজমেন্টের কথায় একটা বিষয় স্পষ্ট। তামিমের বিকল্প হিসেবে তৈরি করা হচ্ছে সৌম্যকেই। প্রধান নির্বাচকের কথায়ও বিশ্বকাপে তামিমকে না পাওয়ার-ই ইঙ্গিত মিলছে।

বিসিবির প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু বলেন, হাঁটুর ইনজুরিতে বর্তমানে পুনর্বাসনে আছেন তামিম। ফিরলেও বিশ্বকাপের জন্য নিজেকে ফিট করতে সময় পাবেন না খুব একটা।

তবে প্রধান এই নির্বাচক আশা ছাড়ছেন না। বলছেন, তামিমের জন্য তারা অপেক্ষা করবেন শেষ পর্যন্ত।

তাছাড়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ না খেললে রঙ্গিন পোশাকে বিলম্বিত হবে তামিমের মাঠে ফেরা। কারণ এফটিপিতে ২০২২ সালের আগে নেই টাইগারদের ওয়ানডে সিরিজ। তাইতো এই ফরম্যাটে তামিমের ক্যারিয়ারের ইতি টানা হয়েছে কিনা, সেই উত্তর জানতে অপেক্ষায় থাকতেই হচ্ছে।

এদিকে, মোবাইল গেম পাবজির এক বিজ্ঞাপন চিত্রে দেখা গেছে বাংলাদেশ জাতীয় দলের ওয়ানডে অধিনায়ককে। সামনেই অনুষ্ঠিত হবে পাবজির একটি ইভেন্ট গালি স্কোয়াড। সেটারই এক বিজ্ঞাপনে অংশ নেন তামিম। বিশ্বে মোবাইল গেমিংগুলোর মধ্যে অন্যতম জনপ্রিয় পাবজি। ২০১৮ সালে অ্যাঙ্গরি বার্ড, টেম্পল রান, ক্যান্ডি ক্রাশের মতো গেমগুলোকে পেছনে ফেলে সবচেয়ে জনপ্রিয় অনলাইন গেমের তালিকায় শীর্ষে জায়গা করে নেয় পাবজি।

যদিও এই গেম নিয়ে অনেক সমালোচনা হয়েছে। বাংলাদেশে তরুণ প্রজন্মের আসক্তির জন্য গেমটাকে দেশে নিষিদ্ধও করার সিদ্ধান্ত হয়েছিল। তবে এখনও গেমটি খেলা যাচ্ছে।