ডিভোর্সের পর ভরণপোষণ বাবদ কত কোটি টাকা পাচ্ছেন সামান্থা?

ডিভোর্সের পর ভরণপোষণ বাবদ কত কোটি টাকা পাচ্ছেন সামান্থা?

বিনোদনজগতে চলছে ভারতের দক্ষিণী অভিনেত্রী সামান্থা রুথ প্রভু আর নাগা চৈতন্য আক্কিনেনির বিবাহবিচ্ছেদ নিয়ে আলোচনা। সেই সঙ্গে আলোচনা চলছে তাদের টাকাপয়সার হিসেব নিয়েও, বিশেষ করে বিবাহবিচ্ছেদের পর সামান্থা ভরণপোষণ বাবদ কত টাকা পাচ্ছেন তা নিয়ে চলছে রসালো আলোচনা।

ভারতের একটি জনপ্রিয় সংবাদমাধ্যমের সূত্রমতে, বিবাহবিচ্ছেদ হলে ভরণপোষণ বাবদ অন্তত ৫০ কোটি রুপি পাবেন সামান্থা, যা তাদের বিয়ের খরচের চেয়ে পাঁচগুণ বেশি। ২০১৭ সালে যখন তারা বিয়ে করেছিলেন সামান্থা-নাগা, সেই আয়োজনে ব্যয় হয়েছিল প্রায় ১০ কোটি রুপি।

অনেকেই বলছেন, আগামী ৭ অক্টোবর বিবাহবিচ্ছেদের ঘোষণা দেবেন সামান্থা ও নাগা। ২০১৭ সালের এই দিনে বিয়ে করেছিলেন তারা। যদিও বিচ্ছেদ ইস্যুতে এখনও পর্যন্ত সরাসরি কিছুই বলেননি এ দম্পতি।

কিন্তু তাদের এক ঘনিষ্ঠ সূত্র দাবি করেছে, বিয়ের পর সামান্থার অভিনয় করা পছন্দ করছে না নাগা পরিবার। তার ওপর ‘ফ্যামিলি ম্যান টু’ সিরিজে খোলামেলা রূপে অভিনয় করেছেন সামান্থা। এর ফলে চৈতন্য এবং তার বাবা নাগার্জুনা বেজায় ক্ষুব্ধ হয়েছেন। সেজন্যই সামান্থার বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নেওয়া।

বিয়ের পর নিজের নামের শেষে ‘আক্কিনেনি’ পদবি ব্যবহার করা শুরু করলেও কিছুদিন আগে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নিজের নাম থেকে ‘আক্কিনেনি’ পদবি মুছে ফেলেন এ অভিনেত্রী। সেখান থেকেই মূলত শুরু হয় তাদের সম্পর্ক ভাঙনের গুঞ্জন শুরু হয়। দিন দিন সেই গুঞ্জন জোড়ালো হয়ে উঠেছে।

 

ভারতের দক্ষিণী মেগাস্টার নাগার্জুনার পুত্র নাগা চৈতন্য। ২০০৯ সালে ‘জোশ’ সিনেমার মধ্য দিয়ে তিনি অভিনয় জীবন শুরু করেন। অন্যদিকে সামান্থার ক্যারিয়ার শুরু হয় নাগার বিপরীতে ২০১০ সালের ‘ইয়ে মায়া চেসাভ’ সিনেমা দিয়ে। একসঙ্গে কাজ করতে গিয়েই তাদের প্রেম হয়। সাত বছর প্রেমের বিয়ে করেছিলেন তারা।