ঢাকাকে ১৪৫ টি ক্লাস্টারে ভাগ করে নতুন পাইপের মাধ্যমে পানি সরবরাহ করা হবে

সংগ্রহীত

ঢাকাকে ১৪৫ টি ক্লাস্টারে ভাগ করে নতুন পাইপের মাধ্যমে পানি সরবরাহ করা হবে

রাজধানীতে চাহিদার চেয়েও বেশি পানি সরবরাহে সক্ষম ঢাকা ওয়াসা। তবে ভূগর্ভস্থ পানির ব্যবহার কমিয়ে ৭০ ভাগ পানিই ভূপৃষ্ঠ বা নদী-নালা থেকে সরবরাহ করার মহাপরিকল্পনা হাতে নিয়েছে সংস্থাটি।

সেইসাথে পানির মান ঠিক রাখতে এবং সম-বন্টনে তৈরি হচ্ছে ‘ডিজিটাল ডিস্ট্রিবিউশন নেটওয়ার্ক।’ যার আওতায় ঢাকাকে ১৪৫ টি ক্লাস্টারে ভাগ করে নতুন পাইপের মাধ্যমে পানি সরবরাহ করা হবে। 

নিউজ টোয়েন্টিফোরকে দেয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে এসব তথ্য দেন ওয়াসায় এক যুগ ধরে ব্যবস্থাপনা পরিচালকের দায়িত্বে থাকা তাকসিম এ খান। কখনো পানির সংকট। আবার কখনো বা ময়লা পানি সরবরাহের অভিযোগ। রাজধানীতে ওয়াসা নিয়ে তাই অনেকেরই ক্ষোভ।

রাজধানীতে প্রতিদিন পানির চাহিদা ২১০ থেকে ২৪৫ কোটি লিটার। আর তাদের উৎপাদন ও সরবরাহ ক্ষমতা ২৬৫ কোটি লিটার। তবে প্রাকৃতিক ভারসাম্য বজায় রাখতে এবার ভূগর্ভস্থ পানির ব্যবহার কমাতে চায় ওয়াসা। সেই লক্ষে পাঁচটি পানি শোধনাগার তৈরি হচ্ছে-জানান ওয়াসার এমডি তাকসিম এ খান।

নিউজ টোয়েন্টিফোরের সাথে একান্ত সাক্ষাৎকারে ময়লা পানি নিয়ে রাজধানীবাসীর ক্ষোভ প্রসঙ্গেও কথা বলেন ওয়াসার এমডি। মহাপরিকল্পনা অনুযায়ী বিশুদ্ধ পানি সরবরাহে ঢাকাকে এবার ১৪৫টি ক্লাস্টারে ভাগ করে ডিজিটাল পদ্ধতিতে পানি বন্টন করবে ওয়াসা।

আগামী ২০২৩-২৪ সালের মধ্যে এই মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নের প্রত্যাশা করেন ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক।