তালেবানের সঙ্গে আলোচনা শুরু করেছে ভারত

সংগ্রহীত

তালেবানের সঙ্গে আলোচনা শুরু করেছে ভারত

নিজেদের দীর্ঘদিনের অবস্থান থেকে সরে এসে তালেবানের সঙ্গে আলোচনা শুরু করেছে ভারত। আফগান তালেবানের সঙ্গে এটাই নয়াদিল্লির প্রথম আলোচনা।এর আগে তালেবানের কোনো গোষ্ঠী বা নেতার সঙ্গে তাদের এধরনের কোনো আলোচনা হয়নি।  

বিষয়টির সঙ্গে জড়িত কর্মকর্তারা এমনটিই জানিয়েছেন।  

তবে ভারত বলছে, তালেবানের যে গোষ্ঠীগুলো জাতীয়তাবাদী হিসেবে পরিচিত, দিল্লি কেবল তাদের সঙ্গেই আলোচনা চালাচ্ছে।  

গত বছর ফেব্রুয়ারিতে তালেবানের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষরের পর থেকেই আফগানিস্তান থেকে সেনা সরিয়ে নিচ্ছে আমেরিকা।

সূত্রের খবর, তৎকালীন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেওর উপস্থিতিতে সেই চুক্তি স্বাক্ষর করা তালেবান নেতা মোল্লা বরাদরের সঙ্গেই আলোচনা শুরু করেছে নয়াদিল্লি।

নাম গোপন রাখার শর্তে নয়াদিল্লির এক কর্মকর্তার বরাত দিয়ে হিন্দুস্তান টাইমস জানিয়েছে, ভারতীয় নিরাপত্তা কর্মকর্তারাই সেই আলোচনা চালাচ্ছেন। তবে তারা স্পষ্টভাবে বুঝিয়ে দিয়েছেন, পাকিস্তান ও ইরানের মদদপুষ্ট তালেবানি নেতাদের সঙ্গে কথা বলা হচ্ছে না। পাকিস্তানের জঙ্গি সংগঠনগুলোর মদদপুষ্ট হক্কানি বা কোয়েটা সুরার সঙ্গেও কোনওরকম আলোচনায় যেতে নারাজ ভারত। তালেবানের যে গোষ্ঠীগুলো ‘জাতীয়তাবাদী’ হিসেবে পরিচিত, তাদের জন্যই আলোচনার দরজা খুলে দেওয়া হয়েছে, যা গত কয়েক মাস ধরেই চলছে। তাতে বিভিন্ন দিক নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হচ্ছে।

প্রেসিডেন্ট আসরাফ গানি, প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট হামিদ কারজাইসহ আফগানিস্তানের নেতৃত্বের সঙ্গেও আলোচনা চালিয়ে যাবে নয়াদিল্লি।

আফগানিস্তান থেকে সব মার্কিন সেনা প্রত্যাহার করা হলে সেখানকার অবস্থা কী হবে তা নিয়ে এক ধরনের অনিশ্চয়তা আছে। তালেবানরা ক্ষমতা দখল করে বসতে পারে বলে মনে করে ভারত। সে কারণে নিজেদের স্বার্থ রক্ষা করতেই তালেবানদের সঙ্গে আলোচনা শুরু করেছে ভারত।