তালেবান ক্ষমতায় আসলে দায়ী থাকবে পাকিস্তান

সংগ্রহীত

তালেবান ক্ষমতায় আসলে দায়ী থাকবে পাকিস্তান

মার্কিন সেনা অপসারণের ঘোষণার পর থেকেই আফগানিস্তানে দিন দিন তালেবান শক্তি বৃদ্ধি পাচ্ছে। দেশটিতে তালেবানগোষ্ঠীর শক্তিবৃদ্ধির জন্য পাকিস্তানকে সরাসরি দায়ী করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা বিষয়ক সাবেক উপদেষ্টা জন বোল্টন।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম ভয়েস অব আমেরিকাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, ইসলামাবাদের আশ্রয়-প্রশ্রয়ের ফলেই শক্তিশালী হয়ে উঠেছে তালেবানগোষ্ঠী।

তার ভাষ্যমতে ‘তালেবানগোষ্ঠী ফের আফগানিস্তানের জাতীয় ক্ষমতায় আসতে চাইছে। গত দু-দশকে তারা ব্যাপক শক্তি অর্জন করেছে এবং এর জন্য পাকিস্তান সরকারের একটি প্রভাবশালী অংশ সরাসরি দায়ী। তাদের কারণে বরাবরই তালেবানগোষ্ঠীর জন্য নিরাপদ স্বর্গ ছিল পাকিস্তান।’

এদিকে আফগানিস্তান থেকে সামরিক জোট ন্যাটো ও মার্কিন সৈন্য সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে। আগামী ১১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে এই কার্যক্রম শেষ হবে। এমতাবস্থায় দেশটিতে তালেবানরা আবারও ক্ষমতায় আসতে পারে বলে শঙ্কা রয়েছে। যদি এমনটা হয় তাহলে আফগান সীমান্ত বন্ধ করে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন পাক পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কোরেইশি।

আফগানিস্তানে শান্তিপ্রতিষ্ঠায় পাকিস্তান কূটনৈতিক প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখবে জানিয়ে শাহ মাহমুদ কোরেইশি বলেন, সেখানে (আফগানিস্তান) গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে নির্বাচিত সরকারকে স্বাগত জানাবে ইসলামাবাদ।

জন বোল্টন আরো বলেন, আফগানিস্তানে তালেবানরা যদি জাতীয় ক্ষমতার অংশীদার হয়ে ওঠে, তাহলে পরবর্তীতে তারা পাকিস্তানের স্থিতিশীলতার জন্য হুমকি হয়ে উঠতে পারে বলে দেশটির সরকারকে সতর্কও করেছেন তিনি।