দুই মেয়েকে বিদেশ নিতে চায় জাপানি মা

দুই মেয়েকে বিদেশ নিতে চায় জাপানি মা
অবকাশ যাপনের জন্য দুই শিশু জেসমিন মালিকা ও লাইলা লিনাকে সঙ্গে নিয়ে জাপান ভ্রমণের অনুমতি চেয়ে আপিল বিভাগে আবেদন করেছেন তাদের মা নাকানো এরিকো।
মঙ্গলবার (১৭ মে) আপিল বিভাগের সংশ্লিষ্ট শাখায় নাকানো এরিকোর আইনজীবীরা এ আবেদন করেন। অ্যাডভোকেট মুহাম্মদ শিশির মনির বিষয়টি সংবাদ মাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, জাপানে শিশু জেসমিন মালিকা ও লাইলা লিনার ছোট বোন ও নানা-নানী রয়েছে। শিশুদের নিয়ে তাদের মা নাকানো এরিকো জাপানে বেড়াতে যেতে চান। এ বিষয়ে আপিল বিভাগে আবেদন করা হয়েছে।

এর আগে গত ১৩ ফ্রেব্রুয়ারি মামলা নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত দুই মেয়ে জেসমিন মালিকা ও লাইলা লিনা জাপানি নাগরিক ডা. এরিকো নাকানোর সঙ্গেই থাকবে বলে আদেশ দেন আপিল বিভাগ। একই সঙ্গে পারিবারিক আদালতে করা মামলাটি তিন মাসের মধ্যে নিষ্পত্তির নির্দেশ দেওয়া হয়।

এই সময়ে নাকানো এরিকো শিশুদের নিয়ে দেশত্যাগ করতে পারবেন না। বাবা ইমরান শরীফ শিশুদের সঙ্গে দেখা করতে পারবেন বলে রায়ে বলা হয়।

প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের ভার্চুয়াল বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

ওইদিন আদালতে মায়ের পক্ষে শুনানি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ব্যারিস্টার আজমালুল হোসেন কিউসি ও অ্যাডভোকেট আহসানুল করীম। সঙ্গে ছিলেন অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ শিশির মনির।

আর বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত মার্কিন নাগরিক ইমরান শরীফের পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট ফিদা এম কামাল, আইনজীবী ফাওজিয়া করিম ফিরোজ ও অনীক আর হক। তাদের সহযোগিতা করেন ব্যারিস্টার মারুফুল ইসলাম।

এদিকে, আদালতের নির্দেশ অমান্য করায় জাপানি দুই শিশুর বাবা বাংলাদেশি নাগরিক ইমরান শরীফের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার আবেদন করেন নাকানো এরিকো।

সোমবার (১৬ মে) প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগে এ আবেদন করা হয়। আদালত আবেদনটি শুনানির জন্য আগামী সোমবার (২৩ মে) দিন ধার্য করেছেন।

আইনজীবী শিশির মনির গণমাধ্যমকে বলেন, আপিল বিভাগের নির্দেশনা রয়েছে দুই শিশু মায়ের সঙ্গে বারিধারায় থাকবেন। বাবা শিশুদের সঙ্গে দেখা করতে পারবেন। এ নির্দেশনা অমান্য করে ইমরান শরীফ জোর করে মাঝে মাঝেই শিশুদের নিয়ে বাইরে যান। এ কারণে আমরা আদালত অবমাননার আবেদন করেছি।

গত বছরের ৫ ডিসেম্বর দুই শিশু জেসমিন মালিকা ও লাইলা লিনাকে নিজের জিম্মায় নিতে হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে আপিল বিভাগে আবেদন করেন জাপানি মা নাকানো এরিকো।

এর আগে, ২১ নভেম্বর দুই শিশু জেসমিন মালিকা ও লাইলা লিনা বাংলাদেশে তাদের বাবা ইমরান শরীফের কাছে থাকবে বলে রায় দেন হাইকোর্ট।