দ. আফ্রিকায় যাবেন কি সাকিব

দ. আফ্রিকায় যাবেন কি সাকিব

ভাবার জন্য দুদিন সময় দেওয়া হয়েছে সাকিব আল হাসানকে। বাংলাদেশের অলরাউন্ডার কি তার সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসবেন? দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে তাকে কি পাবে দল? প্রশ্ন অনেক।

উত্তরটা জানা শুধু সাকিবেরই! তবে শুধু সাকিব একাই ভাবছেন না, বোর্ড কর্তাদেরও ভাবতে হচ্ছে। কারণ ছুটি দেওয়ার ক্ষমতা তো শুধু বোর্ডেরই রয়েছে। সাকিবের ছুটি ‘পাস’ হবে কিনা এ বিষয়ে অবশ্য খুব বেশি কিছু বলতে নারাজ জালাল ইউনুস।

ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির প্রধান গতকাল বললেন, ‘আমাদের যে কোনো একটা সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিত। যেটাই হবে- হ্যাঁ কিংবা না। যাতে আমরা পরিকল্পনা করতে পারি। একটা খেলোয়াড়ের নিজস্ব পরিকল্পনা থাকতে পারে কোন সিরিজ খেলবে, কোন ফরম্যাটে খেলতে চায়। কিন্তু সে যখন কোনো নির্দিষ্ট ফরম্যাটে খেলার কথা দিয়ে ফেলে, তখন সরানো কঠিন, মুশকিল হয়ে যায়।’

বিসিবি পরিচালক ও জাতীয় দলের টিম ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদের প্রশ্ন, সাকিবের কাজটা কী? তিনি বলেন, ‘সাকিব যেহেতু আইপিএলে খেলছে না, সাকিবের কাজটা কী? দল পেলে তো আইপিএলেই খেলতে যেত!’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা জানতাম যে সাকিব দক্ষিণ আফ্রিকায় ওয়ানডে খেলবে, টেস্টেও খেলবে। কিন্তু হুট করেই বলল যে খেলবে না। ও আগে চিঠি দিয়েছিল। বলেছিল খেলবে না। আবার পাপন ভাইয়ের সঙ্গে কথা বলার পর খেলার সিদ্ধান্ত নিল। এখন আবার বলছে খেলবে না। সাকিব যদি খেলতে না চায়, না খেলুক টেস্ট ম্যাচে। আই ডোন্ট কেয়ার।’

প্রসঙ্গত দুবাই যাওয়ার আগে রবিবার রাতে সাকিব বলেন, ‘দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজ নিয়ে যেটা বলতে হয়, মানসিক ও শারীরিক যে অবস্থায় আছি আমার কাছে মনে হয় না আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলা সম্ভব খুব একটা। এই কারণে আমার মনে হয়, যদি আমি একটা বিরতি পাই, আমি যদি ওই আগ্রহটা ফিরে পাই তা হলে আমার খেলাটা সহজ হবে।