নাটোরে অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূর হাত-পায়ের রগ সহ গলা কেটে হত্যা

সংগ্রহীত

নাটোরে অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূর হাত-পায়ের রগ সহ গলা কেটে হত্যা

নাটোরের বড়াইগ্রামে শাহানুর বেগম (৩৫) নামে ৮ মাসের অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে নিজ ঘরে গলা কেটে হত্যার ঘটনা ঘটেছে। তিনি উপজেলার জোয়াড়ি ইউনিয়নের ভবানীপুর জোলাপাড়া গ্রামের চা দোকানি রাশেদ হোসেনের স্ত্রী।

বুধবার (২জুন) রাত ৯টা থেকে ১২টার মধ্যে কোনো এক সময় তিন সন্তানের জননী এই অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে কে বা কাহারা হাত-পায়ের রগ সহ গলাকেটে হত্যা করে রেখে যায়।

জানা যায়, ঘটনাস্থলের পাশেই পুরোনো গ্রামীণ ঐতিহ্য বৈঠকি মাদারের গান চলছিল। নিহতের দুই সন্তান ও শাশুড়ি রাত ৯টার দিকে ওই গানের অনুষ্ঠানে যায় এবং স্বামী চায়ের দোকানেই ব্যস্ত ছিলো বলে জানায় পরিবারের সদস্যরা। দেড়
বছরের শিশু সন্তান নিয়ে ফাঁকা বাড়ির নিজ ঘরেই ঘুমিয়েছিলেন শাহানুর।

গানের অনুষ্ঠান থেকে রাত আনুমানিক সাড়ে ১২টার দিকে বাড়ি ফিরে নিহতের ৮ বছরের শিশুকন্যা তার মায়ের রক্তাক্ত লাশ দেখে চিৎকার করে  উঠলে পরিবারের অন্য সদস্য সহ এলাকাবাসী এগিয়ে আসেন এবং পুলিশে খবর দেন। 

খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন বড়াইগ্রাম সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খায়রুল ইসলাম, বড়াইগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ারুল ইসলাম, ওয়ালিয়া পুলিশ ফাঁড়ি ইনচার্জ ইন্সপেক্টর ফারুক
হোসেন তালাশ।

পরে বৃহস্পতিবার সকালে সি.আই.ডি এসে প্রাথমিক আলামত সংগ্রহের পর মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নাটোর মর্গে পাঠায়।

ওসি আনোয়ারুল ইসলাম জানান, হত্যাকারীদের চিহ্নিত করতে রাত থেকেই পুলিশ জোর প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।