নিশো-মেহজাবীনের বিরুদ্ধে মামলা, সত্যতা পায়নি পিবিআই

নিশো-মেহজাবীনের বিরুদ্ধে মামলা, সত্যতা পায়নি পিবিআই
দুজনেরই জন্ম দরিদ্র পরিবারে। তাই ছোটবেলা থেকে অনেক কিছুর আক্ষেপ নিয়ে বেরে ওঠা তাদের। একসময় এই দুই মানুষই বাস্তব জীবনে স্বামী-স্ত্রী। কিন্তু দুজনের স্বভাবই খারাপ কাজ করে বেড়ানো। স্ত্রী মানুষের বাড়িতে কাজ করে, আর সেখান থেকে টুকিটাকি চুরি করে বেড়ান।
আর স্বামী যিনি বাইরে কাজের নামেও নানা কুকর্ম করে বেড়ান। এসবের মাঝেই তাদের জীবনে আলো করে আসে সন্তান, যে কিনা স্পেশাল চাইল্ড বা প্রতিবন্ধী। আর তাদের মতে, স্পেশাল সন্তানরা বাবা-মায়ের পাপের ফল।

এই ঘটনা কোন বাস্তব কিছু নয়, পুরোটাই একটি নাটক। গত বছর ছোটপর্দার জনপ্রিয় দুই তারকা আফরান নিশো ও মেহজাবীন চৌধুরী অভিনীত নাটক ঘটনা সত্য নিয়ে বহু আলোচনা-সমালোচনা বয়ে যায়, এই স্পেশাল চাইল্ড নিয়ে এমন ডায়লগ থাকায়। পরে নাটকটি সিএমভির ইউটিউব চ্যানেল থেকেও বাদ হয়। যদিও এরপরেও মেহজাবিন ও আফরান নিশোসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছিল।

সেই মামলাতেই এই দুই তারকার যুক্ত থাকার সত্যতা পায়নি তদন্ত সংস্থা পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন। সত্যতা খুঁজে না পাওয়ায় তাদের মামলা থেকে অব্যাহতির সুপারিশ করেছেন তদন্ত কর্মকর্তা পিবিআই’র পুলিশ পরিদর্শক (নিরস্ত্র) নূরুন্নবী সরকার।

নাটক এবং টেলিভিশনের একটি আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রতিবন্ধী ব্যক্তি ও প্রতিবন্ধিতা সম্পর্কে ‘নেতিবাচক’ শব্দ ব্যবহার করায় এ মামলা করা হয়েছিল। মামলাটি করা হয় ‘ঘটনা সত্য’ নামের একটি নাটক নিয়ে, যা চ্যানেল আইয়ের ঈদুল আজহার আয়োজনে ২৩ জুলাই প্রচার করা হয়েছিল।

মামলার আসামিরা ছিলেন- অভিনেত্রী মেহজাবিন চৌধুরী, অভিনেতা আফরান নিশো, চ্যানেল আইয়ের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর, বার্তাপ্রধান শাইখ সিরাজ, নাটকের চিত্রনাট্যকার মঈনুল সানু ও পরিচালক রুবেল হাসান।