পানশিরে সংঘর্ষে ৬০০ তালেবান নিহতের দাবি বিদ্রোহীদের

পানশিরে সংঘর্ষে ৬০০ তালেবান নিহতের দাবি বিদ্রোহীদের

আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ নিলেও এখনো দেশটির অন্যতম প্রদেশ পানশির দখল নিতে পারেনি তালেবান। অঞ্চলটির নিয়ন্ত্রণ নিতে গত মাস থেকেই স্থানীয় আফগান যোদ্ধাদের সঙ্গে লড়াই করছে তারা। চলমান এই সংঘর্ষে তালেবানের প্রায় ৬০০ সদস্য নিহত হয়েছেন। এমন দাবি করেছে বিদ্রোহী ন্যাশনাল রেজিস্ট্যান্স ফ্রন্ট (এনআরএফ)। সংগঠনটির বরাতে এ তথ্য জানিয়েছে এনডিটিভি।

এক টুইটে এনআরএফের মুখপাত্র ফাহিম দাস্তি জানান, পানশিরের বিভিন্ন জেলায় সংঘাতে প্রায় ৬০০ তালেবান নিহত হয়েছে। আটক করা হয়েছে সংগঠনটির ১ হাজারের বেশি সদস্যকে।

এদিকে, তালেবানের সঙ্গে জঙ্গি গোষ্ঠী আল-কায়েদার সদস্যরা যোগ দিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। আল-আরাবিয়াহ টিভির বরাত দিয়ে খবর প্রকাশ করেছে রাশিয়ার বার্তা সংস্থা টিএএসএস।

এর আগে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরা জানিয়েছে, গত সপ্তাহে শান্তি আলোচনা ব্যাহত হওয়ার পর পানশির দখল নিতে সামরিক অভিযান চালিয়েছে তালেবান।

গত মঙ্গলবার প্রতিরোধ ফ্রন্টের মুখপাত্র ফাহিম দাশতি টিএএসএ‘কে বলেন, তাদের আন্দোলন শান্তিপূর্ণ বন্দোবস্তের জন্য প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। একই সঙ্গে পাল্টা আক্রমণ চালানোর জন্যও প্রস্তুত রয়েছে। চলমান লড়াইয়ে মাত্র দুই দিনে প্রায় ৩৫০ তালেবান যোদ্ধা নিহত হয়েছেন এবং আটক করা হয়েছে আরও অন্তত ৩৫ জনকে।

গত ১৫ আগস্ট তালেবানের হাতে আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের পতন হয়। কাবুল দখলের পর তিন সপ্তাহের বেশি সময় পেরিয়ে গেলেও পানশির উপত্যকার নিয়ন্ত্রণ নিতে পারেনি তালেবান। উপত্যকাটি বিদ্রোহী ন্যাশনাল রেজিস্ট্যান্স ফ্রন্টের (এনআরএফ) যোদ্ধাদের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।