বগুড়ায় নির্বাচনি সহিংসতায় আহত ৭

বগুড়ায় নির্বাচনি সহিংসতায় আহত ৭
বগুড়ার শাজাহানপুরে দুই ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) সদস্য প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের সংঘর্ষে সাতজন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় দুজনকে আটক করেছে পুলিশ।

সোমবার (২২ নভেম্বর) রাত পৌনে ৮টার দিকে উপজেলার খরনা ইউনিয়নের বাঁশবাড়িয়া সাকিদারপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।শাজাহানপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোহাম্মদ আলী নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, এ ঘটনায় দুজনকে আটক করা হয়েছে।

আহতদের মধ্যে তিনজন এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাতের শিকার হোন। তাদের বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে। এ তিনজনই খরনা ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের ফুটবল প্রতীকে ইউপি সদস্য প্রার্থী আফজাল হোসেন ফকিরের কর্মী-সমর্থক।

অন্য আহত দুজন হলেন- আফজালের প্রতিদ্বন্দ্বী আবদুল সালামের কর্মী-সমর্থক। তিনি (সালাম) মোরগ প্রতীকে ইউপি সদস্য প্রার্থী। দুজনকেই আটক করেছে পুলিশ। প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তাদেরকে থানা হেফাজতে রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ইউপি সদস্য পদপ্রার্থী আফজালের জামাতা শফিকুল ইসলাম।

তিনি জানান, বাঁশবাড়িয়া সাকিদারপাড়া গ্রামে আফজালের নির্বাচনী অফিস রয়েছে। সেখানে আফজাল তার কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে আলোচনা করছিলেন।  ওই সময় মোরগ প্রতীকের লোকজন ধারালো অস্ত্রসহ লাঠিশোঁটা নিয়ে তাদের ওপর হামলা চালায় এবং মারধর শুরু করে। একপর্যায়ে আফজাল নিজেকে বাঁচাতে একজনের বাড়িতে গিয়ে আশ্রয় নেন।

শাজাহানপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোহাম্মদ আলী জানান, সংঘর্ষের  পর দুজনকে আটক করা হয়েছে। আহতদের মধ্যে কয়েকজন শজিমেক হাসাপাতালে ভর্তি রয়েছেন।