বসন্তবরণ ও বিশ্ব ভালোবাসা দিবসকে সামনে রেখে ফুল চাষিদের ব্যস্ত সময় চলছে

সংগ্রহীত

বসন্তবরণ ও বিশ্ব ভালোবাসা দিবসকে সামনে রেখে ফুল চাষিদের ব্যস্ত সময় চলছে

যশোরের গদখালীর বিস্তির্ণ মাঠজুড়ে গোলাপ, গাঁদা, রজনীগন্ধা, গ্লাডিওলাসসহ নানা রঙের ফুল। এখান থেকেই দেশজুড়ে ফুল সরবরাহ করা হয়। আর তাই বসন্তবরণ ও বিশ্ব ভালোবাসা দিবসকে সামনে রেখে ব্যস্ত সময় পার করছেন এখানকার ফুল চাষিরা। এ বছর ফুলের দর ভাল পেলে করোনা ও আম্পানের ক্ষতি কিছুটা পুষিয়ে নিতে পারবেন এমন আশায় ফুল চাষীরা। 

সারাদেশে যে ফুল বিক্রি হয় তার প্রায় ৭০ শতাংশই সরবরাহ করা হয় যশোরের গদখালী থেকে। ১৩ ফেব্রুয়ারি পহেলা ফাল্গুন, ১৪ ফেব্রুয়ারি ভালোবাসা দিবস আর ২১ ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসকে সামনে রেখেই এখন ব্যস্ততা বেড়েছে ফুল চাষীদের।

এরই মধ্যে ফুল চাষি, পাইকার, শ্রমিকদের পদচারণায় মুখর হয়ে উঠেছে গদখালীর ফুল ক্ষেত ও বাজার। ফুল চাষিরা জানান, গেল বছর করোনা ও আম্পানের কারণে লোকসান গুনতে হয়েছে তাদের। এ বছর যদি ফুলের দর ভাল পায় তাহলে ক্ষতি কিছুটা পুষিয়ে নিতে পারবেন বলে মনে করেন তারা।  

এসব দিবসকে সামনে রেখে দেশের বিভিন্ন জেলায় ফুল সরবরাহ করছেন ব্যবসায়িরা। ফুল চাষকে আরো লাভজনক করে তুলতে সরকারি সহযোগিতা চান বাংলাদেশ ফ্লাওয়ার সোসাইটি সভাপতি আব্দুর রহিম। গদখালিতে এবছর ৬শ’ হেক্টর জমিতে চাষ হয়েছে গোলাপ, রজনীগন্ধা, গ্লাডিওলাস, চন্দ্রমল্লিকা, গাঁদাসহ বিভিন্ন ধরণের ফুল।