বাংলাদেশে ভ্যাকসিন সরবরাহ বন্ধ থাকবে না: দোরাইস্বামী

সংগ্রহীত

বাংলাদেশে ভ্যাকসিন সরবরাহ বন্ধ থাকবে না: দোরাইস্বামী

নিজেদের সংকট থাকলেও বাংলাদেশে ভ্যাকসিন সরবরাহ বন্ধ থাকবে না বলে জানিয়েছেন ভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম দোরাইস্বামী।

বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) সকালে ভারত থেকে সড়ক পথে ঢাকা ফেরার সময় আখাউড়া স্থলবন্দরে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

ভারতীয় হাইকমিশনারকে দু’দেশের শূন্যরেখায় প্রবেশের সময় স্বাগত জানান আখাউড়া উপজেলা ও পুলিশ প্রশাসনসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা।

এ সময় হাইকমিশনার আরও বলেন, বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে নিবিড় সম্পর্ক থাকায় অন্যান্য দেশের চেয়ে বাংলাদেশের সঙ্গে বেশি ভ্যাকসিন সরবরাহের চুক্তি হয়েছে। চুক্তি অনুযায়ী এরই মধ্যে ৭০ লাখ ভ্যাকসিন সরবরাহ করা হয়েছে এবং বাকিগুলোও পর্যায়ক্রমে সরবরাহ করা হবে।

এদিকে, আগামী তিন মাসের মধ্যে টিকা রফতানির সম্ভাবনা নেই বলে জানিয়েছেন বিশ্বের বৃহত্তম টিকা উৎপাদনকারী ভারতীয় প্রতিষ্ঠান সেরাম ইনস্টিটিউটের প্রধান নির্বাহী আদর পুনেওয়ালা। বুধবার এনডিটিভি’কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, এই মুহূর্তে টিকা রফতানি নিয়ে অনিশ্চয়তা রয়েছে।

ভারতে করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় আগামী দুই মাসের মধ্যে টিকা রফতানির দিকে তাকানো উচিত হবে না বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

আগামী জুন-জুলাইয়ে আবারও সামান্য পরিমাণে টিকা রফতানি শুরু হতে পারে বলে জানান সেরাম ইনস্টিটিউটের কর্ণধার।

ভারতে আগামী ১ মে থেকে ১৮ বছরের বেশি বয়সী সবাইকেই টিকা দেওয়া শুরু হবে। সেক্ষেত্রে প্রতি মাসে দেশটির আরও ২০ লাখ ডোজ বেশি প্রয়োজন। সে দিকটায় বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি। একই দিন ভারতের বাজারে করোনা ভ্যাকসিন কোভিশিল্ডের দাম ঘোষণা করে সেরাম ইনস্টিটিউট। ভ্যাকসিনের দাম রাজ্য সরকারের জন্য ৪০০ রুপি ও বেসরকারি হাসপাতালের জন্য ৬০০ রুপি নির্ধারণ করা হয়। সেরামের দাবি, কেন্দ্রীয় সরকারের নির্দেশনা মেনে ভ্যাকসিনের দাম কমানো হয়েছে।