বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা হবে সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে: শিক্ষামন্ত্রী

বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা হবে সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে: শিক্ষামন্ত্রী
শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে এইচএসসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষাও হবে সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে।

রোববার (২ জানুয়ারি) বিকেলে সচিবালয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দপ্তরে নতুন সচিবকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেওয়ার পরে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।
শিক্ষামন্ত্রী বলেন, করোনার কারণে শিক্ষা ব্যবস্থায় থাকা ঘাটতি পূরণই এখন বড় চ্যালেঞ্জ। করোনা সংক্রমনের উর্ধ্বগতির কারণে মার্চ পর্যন্ত পুরোপুরি শিক্ষা কার্যক্রম স্বাভাবিক হবে না।

শিক্ষার্থীদের টিকা কার্যক্রম নিয়ে দীপু মনি বলেন, খুব শিগগিরই সারা দেশের শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়ার কাজ সম্পন্ন করা হবে।
এর আগে ৩০ ডিসেম্বর শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি জানিয়েছিলেন, আগামী বছরের (২০২২) এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা সব বিষয়ে হবে নাকি এবারের মতো গ্রুপভিত্তিক নৈর্বাচনিক বিষয়ে হবে, সেটি নির্ভর করছে করোনা পরিস্থিতির ওপর।

তিনি বলেন, যদি সব বিষয়ে পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব হয়, তাহলে সব বিষয়েই পরীক্ষা নেওয়া হবে। আর যদি একেবারেই সম্ভব না হয়, তাহলে এবারের মতো পরীক্ষা নেওয়া হবে।

২০২২ সালের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার বিষয়ে দীপু মনি বলেন, এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষাও সংক্ষিপ্ত পাঠ্যসূচির ভিত্তিতে হবে অনুষ্ঠিত হবে।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে স্বাভাবিক কার্যক্রম শুরুর বিষয়ে তিনি বলেন, এখন করোনার নতুন ধরন ওমিক্রনের সংক্রমণ শুরু হয়েছে। এ জন্য অন্তত আগামী মার্চ পর্যন্ত পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করা প্রয়োজন।
করোনাভাইরাসের সংক্রমণের কারণে নির্ধারিত সময়ের সাড়ে আট মাস পর ২০২১ সালের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা ১৪ নভেম্বর শুরু হয়ে শেষ হয় ২৩ নভেম্বর। ২০২১ সালে ২২ লাখ ৭৮ হাজার পরীক্ষার্থী এসএসসি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করেন।
করোনার কারণে গত বছর সব বিষয়ের পরীক্ষা হয়নি। শুধু গ্রুপভিত্তিক (বিজ্ঞান, মানবিক, ব্যবসায় শিক্ষা ইত্যাদি) তিনটি বিষয়ের ওপর সময় ও নম্বর কমিয়ে এ পরীক্ষা হয়। অন্য আবশ্যিক বিষয় ও চতুর্থ বিষয়ের পরীক্ষা হয়নি। এসব বিষয়ে জেএসসি ও সমমানের পরীক্ষার নম্বরের ভিত্তিতে ‘ম্যাপিং’ করে নম্বর দেওয়া হয়।