বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীকে তুলে নিয়ে দল বেঁধে ধর্ষণ : আটক ৬

বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীকে তুলে নিয়ে দল বেঁধে ধর্ষণ : আটক ৬

গোপালগঞ্জ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে এক শিক্ষার্থীকে গণধর্ষণের ঘটনায় ৬ জনকে আটক করেছে মাদারীপুর র‌্যাব ক্যাম্পের একটি দল।

শুক্রবার রাতে মাদারীপুর র‌্যাব ক্যাম্প এর এক কোম্পানী কমান্ডার মোহাম্মদ সাদেকুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তবে তিনি বিস্তারিত তথ্য প্রকাশ করেননি।

আটককৃতদের নাম পরিচয়সহ শনিবার সাংবাদিকদের বিস্তারিত তথ্য প্রদান করে প্রেস কনফারেন্স করা হবে বলে জানান তিনি।

তিনি জানান, র‌্যাবরে একটি দল  বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে গণর্ধষণরে ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ৬ জনকে আটক করেছে। ধর্ষণের ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর রাজিউর রহমান বাদী হয়ে গোপালগঞ্জ সদর থানায় মামলা করেন। সেই মামলার ভিত্তিতেই তাদের আটক করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রীকে তুলে নিয়ে দলবদ্ধ ধর্ষণের প্রতিবাদে ঢাকা-খুলনা মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা।

বুধবার রাত সাড়ে নয়টার দিকে দলবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে বলে অভিযোগ। এর প্রতিবাদে এবং ধর্ষকদের বিচারের দাবিতে শিক্ষার্থীরা গোপালগঞ্জ সদর থানার সামনে অবস্থান নেন। বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা এ ঘটনার বিচার চেয়ে তিন দফা দাবি জানিয়েছেন।

বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের একাধিক সূত্র জানিয়েছে, দুই শিক্ষার্থী গোপালগঞ্জ সদরের নবীনবাগ হেলিপ্যাডের সামনে থেকে হেঁটে আসছিলেন। এ সময় তাঁদের দুজনকে একটি অটোরিকশায় তুলে নেয় দুর্বৃত্তরা। পরে ছাত্রটিকে বেঁধে রেখে গোপালগঞ্জ জিলা স্কুলের নির্মাণাধীন একটি ভবনে কয়েকজন মিলে ছাত্রীটিকে ধর্ষণ করে।