বিয়েতে খাবার নিয়ে মারামারি, কনের আত্মহত্যার চেষ্টা

বিয়েতে খাবার নিয়ে মারামারি, কনের আত্মহত্যার চেষ্টা

নরসিংদী রায়পুরার বিয়ে বাড়িতে খাবার কম দেয়াকে কেন্দ্র করে বর ও কনেপক্ষের মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটছে। এতে কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছে। এদিকে উভয় পক্ষের মধ্যে মারামারি ও সংঘর্ষের ফলে বিয়ে না করেই ফিরে যান বর। তাই রাগে ক্ষোভে আত্মহত্যার চেষ্টা চালায় নববধূ।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, রায়পুরার মুসাপুর ইউনিয়নের পূর্ব হরিপুর গ্রামের রফিকুল ইসলামের মেয়ের সঙ্গে একই উপজেলার মাহমুদপুর গ্রামের আতাউর মিয়ার ছেলের দীর্ঘদিনের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। সেই সূত্র ধরেই দুই পরিবারের সম্মতিতে শুক্রবার তাদের বিয়ের দিন ধার্য করা হয়।

দুপুরের পর বরযাত্রী আসলে খাওয়া-দাওয়া শুরু হয়। এক পর্যায়ে বরপক্ষের লোকজনকে খাবার কম দেয়ায় বরের বাবা রফিকুল ইসলাম ক্ষিপ্ত হয়। একপর্যায়ে তিনি খাবার ভর্তি প্লেট ঢিল মেরে ফেলে দেয়। এই দুপক্ষের মধ্যে তর্কবিতর্ক হয়। পরে তা হাতাহাতি ও মারামারিতে রূপ নেয়। এ ঘটনায় স্থানীয় সাংবাদিকসহ দুইপক্ষের ১০ জন আহত হয়।

খবর পেয়ে রায়পুরা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। ওই সময় বিয়ে সম্পন্ন না করেই বরসহ বরযাত্রীরা ফিরে যায়। এদিকে বিয়ে ভেঙ্গে যাওয়ায় আত্মহত্যার চেষ্টা করেন কনে।

রায়পুরা থানার এসআই রাকিবুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, বরপক্ষকে খাবার কম দেয়াকে কেন্দ্র করে দুইপক্ষের মধ্যে হাতাহাতি হয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করে। তবে এ ঘটনায় কোনো পক্ষই থানায় অভিযোগ দায়ের করেনি।