বিয়ের আসরেই পুত্র সন্তানের জন্ম দিল কনে

বিয়ের আসরেই পুত্র সন্তানের জন্ম দিল কনে

বিয়ে বাড়ি মানেই নাচ-গান আনন্দ উচ্ছ্বাস। বর-কনের চার হাত এক হওয়ার সময়। এবার ভিন্ন এক বিয়ের সাক্ষী হল মানুষ। বিয়ের আসরেই সন্তান প্রসব মনে হয় এই প্রথম।

জানা গেছে, বিয়ের আসরেই সন্তান প্রসব করেছেন কনে। আর এই ঘটনায় রীতিমতো আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে এলাকাজুড়ে। তবে অবাহ করার বিষয় হল বিয়ের আসরে সন্তান প্রসব করলেও মহা ধুমধামেই বিয়ের কাজ সম্পন্ন হয়েছে। নিজের পুত্রবধুকে একেবারে সসম্মানে ঘরে তুলেছেন তার শ্বশুরবাড়ির লোকজন।

ভারতীয় গণমাধ্যম এক প্রতিবেদনে এসব তথ্যই তুলে ধরা হয়েছে।

সংবাদমাধমটি নববধূর শ্বশুরবাড়ির বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে আরও উল্লেখ করে, সম্প্রতি সীমান্তবর্তী বদেরাজপুর ব্লকের বাঁশকোট গ্রামের বাসিন্দা চন্দম নেতাম নামে এক যুবকের বিয়ে ঠিক হয় ওড়িশার বাসিন্দা শিববতী নামে এক তরুণীর সঙ্গে। গত ৩১ জানুয়ারি বিয়ের অনুষ্ঠান। কথাবার্তা মতো দুই পরিবারে বিয়ের প্রস্তুতিও চলছিল জোর কদমে।

বিয়ে উপলক্ষে দুই পরিবারের সকল আচার অনুষ্ঠানের পাশাপাশি বিয়েতে আয়োজনের খামতি ছিল না একটুকুও। পাশাপাশি নিমন্ত্রিত অথিতিদের সংখ্যাও নেহাত কম ছিল না।

কনের গায়ে হলুদের মণ্ডপে আচমকাই পেটে প্রচণ্ড ব্যথা অনুভব করেন কনে শিববতী। পরে পাত্রী শিববতীকে গ্রামের প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই ফুটফুটে একটি পুত্রসন্তানের জন্ম দেন কনে। ভাবী পুত্রবধূর সন্তানপ্রসবের কথা মুহূর্তের মধ্যে গোটা গ্রামে ছড়ানোর পাশাপাশি পৌঁছে যায় তার শ্বশুরবাড়িতেও।

এরপর নিজের ভাবী পুত্রবধুকে আশীর্বাদ করতে ছুটে আসেন তার শ্বশুরবাড়ির লোকেরা। ঘটনায় পাত্র চন্দন নেতামের বাবা ছেদিলাল নেতাম সাফ জানান, “পুত্রবধূর পুত্রসন্তান হওয়ায় ঘরে বিয়ের আনন্দ আরও দ্বিগুণ হয়েছে। ”

ঘটনায় রীতিমতো আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে গোটা এলাকায়। তবে পুত্রবধূর সঙ্গে আদরের নাতিকে পেয়ে আনন্দিত শ্বশুর-শাশুড়ি থেকে শুরু করে পরিবারের বাকি সদস্যরা। নিজের পুত্রসন্তানকে নিয়ে বিয়ের পিঁড়িতে স্বামীর গলায় মালা পরিয়েছেন শিববতী। বিয়ের অনুষ্ঠান পালিত হয়েছে মহাধুমধামে।