ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিয়ের গেট নিয়ে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষ, আহত ২০

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিয়ের গেট নিয়ে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষ, আহত ২০

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে বিয়েবাড়ির গেট বানানোকে কেন্দ্র করে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) সন্ধ্যা ৭টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত উপজেলার কৃষ্ণনগর ইউনিয়নের দৌলতপুর ও সীতারামপুর গ্রামের বাসিন্দাদের মধ্যে দফায় দফায় এ সংঘর্ষ চলে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সোমবার (১৫ আগস্ট)  সীতারামপুর গ্রামের রিয়াজুদ্দীন মিয়ার বাড়িতে বিয়ের অনুষ্ঠানের আয়োজন চলছিল। সেখান ডেকোরেশনের লোকজন কাজ করছিলেন। দৌলতপুর গ্রামের হাসান আলী বাড়ির এক ছেলেও সেখানে কাজ করছিলেন। ডেকোরেশনের গেটের কাজ বিয়ে বাড়ির লোকজনের পছন্দ হয়নি। এ নিয়ে ডেকোরেশনের কাজ করা দৌলতপুরের ওই ছেলেটির সঙ্গে তাদের কথা কাটাকাটি ও হাতাহাতি হয়। বিষয়টি শেষ করার জন্য উভয়পক্ষকে নিয়ে মঙ্গলবার বিকেলে কৃষ্ণনগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরে বসেছিলেন। কিন্তু এরই মধ্যে বিয়ে বাড়ির গেটের ঘটনাকে কেন্দ্র করে দৌলতপুর ও সীতারামপুর গ্রামের দুই যুবক মারামারিতে জড়িয়ে পড়েন। এ নিয়ে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষ বেধে যায়।

নবীনগর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুর রশিদ বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ওই এলাকায় যায়। দুই গ্রামের বাসিন্দাদের নিবৃত্ত করতে সেখানে অর্ধশতাধিক রাউন্ড রাবার বুলেট ছোড়া হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।