ভেসে আসছে সুন্দরবনের মৃত হরিণ

সংগ্রহীত

ভেসে আসছে সুন্দরবনের মৃত হরিণ

ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে সৃষ্ট জলোচ্ছ্বাস-জোয়ারের পানিতে সুন্দরবনে বন্য প্রাণীর মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। বুধবার রাত ৮টা পর্যন্ত তিনটি মৃত হরিণ উদ্ধার করা হয়েছে। এর মধ্যে লোকালয়সংলগ্ন বলেশ্বর নদ থেকে উদ্ধার হওয়া একটি হরিণের পেটে বাচ্চা ছিল।

জলোচ্ছ্বাস ও পূর্ণিমার অতিরিক্ত জোয়ারে হরিণ ছাড়াও সুন্দরবনে অন্য আরও বন্য প্রাণী মারা গেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

স্থানীয় বাসিন্দা মো. ছানোয়ার হোসেন রিয়াদ জানান, সুন্দরবনের দিক থেকে বিকেলে রাজেশ্বরের মোড় এলাকায় একটি মৃত হরিণ ভেসে আসে। আমরা হরিণটিকে দেখে বন বিভাগকে খবর দিয়েছি। 

সুন্দরবন পূর্ব বন বিভাগের শরণখোলা রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক (এসিএফ) মো. জয়নাল আবেদিন বলেন, স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে আমরা হরিণের মরদেহ উদ্ধার করার জন্য লোক পাঠিয়েছি। হরিণটির মারা যাওয়ার কারণ এই মুহূর্তে বলা যাচ্ছে না। তবে মরদেহটি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে মৃত্যুর কারণ জানার চেষ্টা করা হবে। 

ইয়াসের প্রভাবে সৃষ্ট জলোচ্ছ্বাসের প্রভাবে হরিণটি মারা গেছে কিনা এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, বঙ্গোপসাগর ও নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় সুন্দরবনের অনেক জায়গা প্লাবিত হয়েছে। তবে এর ফলে কোনও প্রাণী মারা গেছে কিনা বা কি পরিমাণ ক্ষতি হয়েছে তা পরে জানা যাবে।

উদ্ধার হওয়া তিনটি হরিণই নারী। এদের মধ্যে বলেশ্বর নদ থেকে উদ্ধার হরিণটির পেটে বাচ্চা রয়েছে। এই হরিণকে বুধবার সন্ধ্যায় শরণখোলা রেঞ্জ অফিস চত্বরে মাটিচাপা দেওয়া হয়েছে।