মাথা ও মুখ ঢেকে সাবেক তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান দেশে ফিরছেন

মাথা ও মুখ ঢেকে সাবেক তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান দেশে ফিরছেন

কানাডার পর দুবাইয়ে ঢুকতে চেয়েও ব্যর্থ হয়ে সাবেক তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান দেশে ফিরছেন। আজ বিকাল ৫টা ৪ মিনিটে এমিরেটসের ইকে-৫৮৬ নম্বর ফ্লাইটে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান তিনি। তবে ডা. মুরাদ তার বর্তমান ঠিকানা রাজধানীর ধানমন্ডির বাড়িতে যাননি। ধানমন্ডির নতুন ১৫ নম্বর রোডের এই বাড়িতেই সপরিবারে বসবাস করেন তিনি।

আজ রবিবার বিকেল ৫টার দিকে এমিরেটস এয়ারলাইন্সের ইকে-৫৮৬ নম্বর ফ্লাইটে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান সাবেক এই তথ্য প্রতিমন্ত্রী। বিমানবন্দর থেকে একটি সূত্র জানায়, বিমানবন্দরে নিয়মমাফিক কাজ শেষ করে সন্ধ্যা ছয়টার দিকে একটি প্রাইভেটকারে চড়ে বেরিয়ে যান তিনি।

সূত্র আরও জানায়, মুরাদ হাসান বিমানবন্দরের ভিআইপি গেটের সামনে এলেও সাংবাদিকদের দেখে ভেতরে চলে যান এবং বিমানবন্দরের ভেতর দিয়ে অভ্যন্তরীণ টার্মিনালে যান। সেখানে বাইরে তার জন্য হোন্ডা সিআরভি ব্র্যান্ডের একটি গাড়ি প্রস্তুত ছিল। দেশে ফেরার সময় মুরাদ হাসানের পরনে ছিল নীল রঙের জিন্স প্যান্ট ও হুডি জ্যাকেট। মাথা ও মুখ ঢেকে গাড়িতে চড়েন তিনি।

ধানমন্ডির বাড়ির নিরাপত্তাকর্মী মো. সুমন আলী সন্ধ্যা ৭টার দিকে গণমাধ্যমকে বলেন, ‘স্যার বাংলাদেশে এসেছেন জানতে পেরেছি। তবে তিনি বাসায় এখনও আসেননি। বাসায় তার পরিবারের সদস্যরা আছেন।’ নিরাপত্তাকর্মী আরও জানান, ‘গত সপ্তাহের সোমবার ধানমন্ডির বাসা থেকে তিনি বেরিয়ে যান। তারপর আর বাসায় ফেরেননি।’

এদিকে, গত শুক্রবার মুরাদ হাসান কানাডার বিমানবন্দরে পৌঁছালে তাকে দেশটির বর্ডার সার্ভিস এজেন্সি ঢুকতে দেয়নি। তাকে ইমিগ্রেশন কর্মকর্তারা জিজ্ঞাসাবাদ করেন। পরে তাকে জানানো হয়, দেশটিতে প্রবেশে কানাডিয়ান নাগরিকরা আপত্তি তুলেছেন। পরে তাকে দুবাইগামী একটি ফ্লাইটে তাকে তুলে দেওয়া হয়।

পরে দুবাইতেও ঢুকতে না পেরে মুরাদ হাসান দেশে আসার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে খবর পাওয়া যায়। তার দেশে ফেরার খবরে রবিবার সকাল থেকে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে সাংবাদিকরা ভিড় করেন। তাদের ফাঁকি দিয়ে গোপনে বিমানবন্দর ছাড়েন মুরাদ হাসান। উল্লেখ্য, নারী বিদ্বেষী, অশালীন ও অবমাননাকর বক্তব্যের জেরে গত ৭ ডিসেম্বর মুরাদ হাসান তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রীর পদ ছাড়তে বাধ্য হন।