মিরাজের শততম শিকার মোসলে

সংগ্রহীত

মিরাজের শততম শিকার মোসলে

টেস্ট ক্যারিয়ারের ১০০তম উইকেট হিসেবে শেন মোসলেকে (৭) সাজঘরে ফিরিয়েছেন মেহেদী হাসান মিরাজ। এর আগে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ওপেনার-অধিনায়ক ক্রেইগ ব্রাথওয়েটকে (৬) আউট করেন নাঈম হাসান।

এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ৯ ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে ২২ রান করেছে উইন্ডিজ। ব্যাটিংয়ে আছেন ওপেনার জন ক্যাম্পবেল (৭) ও এনক্রুমাহ বোনার (২)। উইন্ডিজ লিড নিয়েছে ১৩৫ রানের।

এর আগে বাংলাদেশ প্রথম ইনিংসে করে ২৯৬ রান। ১১৩ রানে এগিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করে সফকারী দল। উইন্ডিজ প্রথম ইনিংসে করে ৪০৯ রান।  

শনিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) মিরপুরে ঢাকা টেস্টের তৃতীয়দিনে লিটন দাশের সঙ্গে জুটি গড়ে বাংলাদেশকে ফলোঅন এড়াতে সাহায্য করেন মেহেদী হাসান মিরাজ। সপ্তম উইকেটে দু’জনে ২৫৫ বলে করেন ১২৬ রানের জুটি। দুজনে তুলে নেন ফিফটি।   

তাদের এই জুটি ভাঙেন কর্নওয়াল। একই ওভারে লিটনকে (৭১) আউট করার পর নাঈম হাসানকেও শূন্য হাতে ফেরান তিনি। সেই সঙ্গে টেস্ট ক্যারিয়ারে দ্বিতীয়বারের মতো ৫ উইকেট পেলেন কর্নওয়াল।  

লিটনকে হারানোর পর বেশিক্ষণ টিকেননি মিরাজও। ব্যক্তিগত ৫৭ রানে তিনি সাজঘরে ফেরেন শ্যানন গ্যাব্রিয়েলের বলে। শেষ উইকেট হিসেবে আবু জায়েদকে (১) ফেরান আলঝেরি জোসেফ। তাইজুল ইসলাম অপরাজিত ছিলেন ১৩ রানে।  

এর আগে মুশফিকুর রহিমের বিদায়ের পর দল যখন চূড়ান্তভাবে ধুঁকছিল, ঠিক সেই সময় বাংলাদেশের ত্রাতা হয়ে আসেন লিটন ও মিরাজ। তাদের জুটিতেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দলীয় ২১০ রান করে ফলোঅন এড়ায় টাইগাররা।

ফিফটির পাশাপাশি নিজের টেস্ট ক্যারিয়ারে ১০০০ রানের মাইলফলক স্পর্শ করেন লিটন। ২২ টেস্ট ও ৩৭ ইনিংসে এই কীর্তি গড়েন তিনি।

মুশফিকের বিদায়ে ফের বিপর্যয়ে পড়েছিল বাংলাদেশ। উইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টের তৃতীয় দিন শুরুতেই সাদা পোশাকের ক্যারিয়ারে ২২তম ফিফটির পর রাহকিম কর্নওয়ালের বলে আত্মঘাতী শট খেলে বিদায় নেন তিনি।

দিনের শুরুতে পঞ্চম উইকেট জুটিতে মুশফিকুর রহিমের সঙ্গে ৭১ রান করার পর বিদায় নেন মোহাম্মদ মিঠুন। রাহকিম কর্নওয়ালের বলে ব্যক্তিগত ১৫ রানে ফেরেন তিনি।

শনিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে তৃতীয় দিনের খেলায় মুখোমুখি হয় দু’দল। যেখানে প্রথম ইনিংসে ক্যারিবীয়রা ৪০৯ রানের বিশাল সংগ্রহ করে।