মেসির জোড়া গোলে আর্জেন্টিনার বড় জয়

সংগ্রহীত

মেসির জোড়া গোলে আর্জেন্টিনার বড় জয়

আর্জেন্টিনার হয়ে রেকর্ড গড়ার ম্যাচে জ্বলে উঠলেন লিওনেল মেসি। তার জোড়া গোল ও এক অ্যাসিস্টে কোপা আমেরিকায় বলিভিয়ার বিপক্ষে ৪-১ ব্যবধানের বড় জয় পেয়েছে লিওনেল স্কালোনির শিষ্যরা।

‘এ’ গ্রুপে নিজেদের শেষ ম্যাচে অ্যারেনা পানতানালে মুখোমুখি হয় দুদল। যেখানে আর্জেন্টিনার হয়ে ১৪৮তম ম্যাচ খেলে হাভিয়ার মাশ্চেরানোকে ছাড়িয়ে যান মেসি। এছাড়া এছাড়া এদিন দেশটির সপ্তম ফুটবলার হিসেবে ১০০তম ম্যাচ খেলেন মেসির সতীর্থ-বন্ধু সার্জিও আগুয়েরো।

এক চেটিয়া আধিপত্য দেখানোর এ ম্যাচে আর্জেন্টিনা ১৮টি শট নেয়। যার ১৩টিই ছিল গোলমুখে।

আক্রমণাত্মক খেলা আলবিসেলেস্তারা এদিন ম্যাচের ষষ্ঠ মিনিটেই এগিয়ে যায়। আনহেল কোরেয়ার পাঞ্চ থেকে মেসি বল পেলে সেখান থেকেই এই তারকা বলিভিয়ান ডিফেন্সের ওপর দিয়ে ক্লিপ করেন। পরে সেই বলেই ভল্যিতে দারুণ দক্ষতায় গোলে পরিণত করেন আলেহান্দ্রো গোমেস।

৩৩তম মিনিটে পেনাল্টি থেকে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন মেসি। গোমেসকে বলিভিয়ার হুসতিনিয়ানো বক্সের মধ্যে ফেলে দিলে স্পট কিকে সেখান থেকে গোল করতে কোনো ভুল করেননি দেশটির সেরা তারকা।

খেলার ৪২তম মিনিটে এবার ওপেন প্লে থেকে নিজের জোড়া গোল পূরণ করেন মেসি। আগুয়েরোর থ্রু বল ধরে বক্সের বাইরে থেকে বাঁ পায়ে শট নেন মেসি। এগিয়ে আসা বলিভিয়ার গোলরক্ষক কার্লোস লাম্পের মাথার ওপর দিয়ে জালে জড়ায় বল। জাতীয় দলে মেসির এটি ৭৫তম গোল। পরে ৩-০ ব্যবধানে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় দলটি।

বিরতির পর ৬০তম মিনিটে একটি গোল শোধ দেয় বলিভিয়া। হুসতিনিয়ানোর পাস থেকে গোলটি করেন এরউইন সাভেদ্রা।

তবে ব্যবধান বাড়াতে খুব বেশি সময় নেয়নি আর্জেন্টিনা। ৬৫তম মিনিটে আগুয়েরোর বদলি হিসেবে মাঠে নামা লাওতারো মার্তিনেস গোলটি করেন।

খেলার বাকি সময় আর্জেন্টিনা আরও কিছু প্রচেষ্টা চালায়। তবে আর কোনো গোল পায়নি দলটি।

এদিন আর্জেন্টিনার বিপক্ষে মাঠে নামার আগেই অবশ্য বিদায় নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল বলিভিয়ার। তবে আর্জেন্টিনার জন্য ম্যাচটি ছিল গ্রুপসেরা হয়ে নকআউট পর্বে যাওয়ার। আর এমন কাজ সহজেই সেরে নিলেও মেসিরা। ব্রাজিলের মতো চার ম্যাচে ১০ পয়েন্ট পেয়ে প্রথম পর্ব শেষ করেছে আর্জেন্টিনাও।

গ্রুপ পর্বের শেষ দিনের আরেক ম্যাচে প্যরাগুয়েকে ১-০ গোলে হারিয়েছে উরুগুয়ে। ৭ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে উঠে এসেছে কোপা আমেরিকার সফলতম দলটি।

৬ পয়েন্ট নিয়ে তাদের পরেই রয়েছে প্যারাগুয়ে। ৫ পয়েন্ট নিয়ে চারে থাকা চিলি কোয়ার্টার-ফাইনালে মুখোমুখি হবে ব্রাজিলের। শূন্য হাতে ফিরছে বলিভিয়া।

আগামী রোববার ‘বি’ গ্রুপ চতুর্থ হওয়া ইকুয়েডরের বিপক্ষে কোয়ার্টার-ফাইনালে খেলবে আর্জেন্টিনা।