যাদুকাটা নদীতে বাংলাদেশির মরদেহ, ৩৯ ঘণ্টা পর ফেরত দিল বিএসএফ

সংগ্রহীত

যাদুকাটা নদীতে বাংলাদেশির মরদেহ, ৩৯ ঘণ্টা পর ফেরত দিল বিএসএফ

সুনামগঞ্জের তাহিরপুরের যাদুকাটা নদীর ভারতীয় সীমান্তে ভেসে ওঠা বাংলাদেশি যুবক সাইদুর রহমানের (২৪) মরদেহ ৩৯ ঘণ্টা পর ফেরত দিলো ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)।

মঙ্গলবার (২৩ মার্চ) রাতে তাহিরপুর সীমান্তের আন্তর্জাতিক সীমান্ত পিলার ১২০৩ এস আর এলাকায় বিজিবি ও বিএসএফের মধ্যে পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে সুনামগঞ্জ ২৮ ব্যাটালিয়ন বিজিবি ও তাহিরপুর থানা পুলিশের কাছে নিহত সাইদুর রহমানের মরদেহ হস্তান্তর করা হয়।

পতাকা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন লাউড়েরগড় বিজিবির ক্যাম্প কমান্ডার নায়েক সুবেদার আব্দুর রাজ্জাক, তাহিরপুর থানার বাদাঘাট পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ রাজিবুল ইসলাম, ভারতীয় শিলং সেক্টরের ১১ বিএসএফের ক্যাপ্টেন অরবিন্দু সিং ও ভারতীয় পুলিশের কর্মকর্তারা।

নিহত সাইদুর রহমান তাহিরপুর উপজেলার উত্তর বড়দল ইউনিয়নের বারেকটিলার লাকড়ী ব্যবসায়ী হাবিবুর রহমানের ছেলে। তিনি পেশায় একজন কয়লাশ্রমিক।

জানা গেছে, গত সোমবার (২২ মার্চ) ভোরে কয়লাশ্রমিক সাইদুর রহমান সীমান্ত নদী যাদুকাটার ভারতীয় অংশের ঘোমাঘাট এলাকায় বেশ কয়েকজন বাংলাদেশির সঙ্গে কয়লা তুলতে যান।

এসময় টহলরত বিএসএফ সদস্যরা তাদেরকে তাড়া করলে সাঁতরে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে আসার চেষ্টা করেন। অন্যরা সাঁতরে নদী পার হয়ে এপারে চলে আসলে সাইদুর রহমান পানিতে ডুবে মারা যান। পরে ভারতীয় সীমান্তের প্রায় এক কিলোমিটার ভেতরে নালিকাটা থানার ঘোমাঘাট এলাকায় সাইদুরের মরদেহ ভেসে ওঠে।