যুদ্ধাপরাধের বিষয়ে আনুষ্ঠানিক চিঠি পেল ইসরায়েল

সংগ্রহীত

যুদ্ধাপরাধের বিষয়ে আনুষ্ঠানিক চিঠি পেল ইসরায়েল

ফিলিস্তিনের উপর নির্যাতনের জন্য যুুদ্ধাপরাধের অভিযোগ তদন্তে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের (আইসিসি) পাঠানো চিঠি আনুষ্ঠানিকতভাবে গ্রহণ করেছে ইসরায়েল। গত বুধবার দেশটির সরকার এই চিঠি গ্রহণ করেছে বলে জানিয়েছে ইসরায়েলের সংবাদমাধ্যম।  

প্রতিবেদন অনুসারে চিঠিটি এসে পৌঁছেছে। ইতোমধ্যে প্রতিক্রিয়া জানাতে ইসরায়েলের জাতীয় নিরাপত্তা কাইন্সিল বৈঠক করেছে। চিঠির জবাবা দিতে এক মাসের সময় বেধে দেওয়া হয়েছে। 

দেড় পৃষ্ঠার ওই চিঠিতে তিনটি ঘটনা তদন্তের বিষয় উল্লেখ করেছে আইসিসি। এর মধ্যে জোর করে ফিলিস্তিনিদের তাদের বাড়িঘর থেকে উচ্ছেদ করে সেখানে অবৈধ ইহুদি বসতি নির্মাণ, ২০১৪ সালে হামাসের সঙ্গে ইসরাইলের যুদ্ধে মানবাধিকার লঙ্ঘন এবং ২০১৮ সাল থেকে ফিলিস্তিনিদের ঘরে ফেরার আন্দোলন শুরু হওয়ার পর থেকে তাদের ওপর নির্বিচারে গুলিবর্ষণ করে কয়েকশ’ সাধারণ মানুষকে হত্যা করার ঘটনা তদন্ত করার কথা রয়েছে।
আইসিসি প্রত্যাশা করছে, ইসরায়েল তার আগের অবস্থান থেকে ফিরে আসবে এবং এসব যুদ্ধাপরাধ তদন্তে আইসিসিকে সহায়তা করবে।

আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের প্রসিকিউটররা শুক্রবার বলেন, তারা যুদ্ধাপরাধের তদন্তের সূচনা করার বিষয়ে ইসরায়েল এবং ফিলিস্তিনিদের চিঠি পাঠিয়েছেন। 

এ মাসের শুরুতেই  আইসিসির প্রসিকিউটর ফাতু বেনসুদা ঘোষণা করেছিলেন যে, তিনি ফিলিস্তিনি অঞ্চলে হওয়া যুদ্ধাপরাধের আনুষ্ঠানিক তদন্ত করবেন। এতে ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে স্বাগত জানানো হয়। তবে এই পদক্ষেপের নিন্দা জানায় ইসরায়েল।