লতার মরদেহের সামনে শাহরুখের মাস্ক নামানো নিয়ে ভারতে চরম বিতর্ক

লতার মরদেহের সামনে শাহরুখের মাস্ক নামানো নিয়ে ভারতে চরম বিতর্ক

ভারতের রীতি অনুযায়ী, ছোটরা বাড়ি থেকে বের হওয়ার আগে আঙুল কামড়ে দেন মা-চাচিরা। কেউ কেউ থুতু ছেটানোর ভঙ্গিও করেন। লতা মঙ্গেশকরের শেষকৃত্যে শ্রদ্ধা জানানোর সময় অভিনেতা শাহরুখ খানও কি সে রকমই কিছু করতে চেয়েছিলেন? নেটমাধ্যমে শাহরুখের শ্রদ্ধাজ্ঞাপনের একটি ভিডিও দেখার পর আপাতত এই প্রশ্নেই উত্তাল ভারতের একাংশ।

লতার অন্তিম সংস্কার সম্পন্ন হয় রবিবার সন্ধ্যায়। আর শাহরুখের শ্রদ্ধাজ্ঞাপনের মুহূর্তের ওই ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে তার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই। ভিডিওতে বলিউডের ‘বাদশা’কে দেখা যায়, দুই হাত বিশেষ ভঙ্গিমায় রেখে প্রয়াত সঙ্গীতশিল্পীর জন্য ‘দুয়া’ বা প্রার্থনা করছেন তিনি। তারপর মুখ থেকে মাস্ক নামিয়ে দু’টি ঠোঁট সরু করে একটি বিশেষ ভঙ্গিমাও করেন। শাহরুখের ওই মুখভঙ্গি নিয়েই শুরু হয়েছে বিতর্ক।

ভারতের একাংশ যখন তার প্রথম ভঙ্গির প্রশংসায় পঞ্চমুখ, পাশাপাশি তার ম্যানেজারের জোড় হাতে প্রণাম ও তার ‘দুয়া’কে ‘মিনি ইন্ডিয়া’ বলে গর্ববোধ করছেন, ঠিক তখনই আরেক শ্রেণির মানুষ প্রশ্ন তুলেছেন, অভিনেতার পরের মুহূর্তের মুখভঙ্গি নিয়ে। তারা জানতে চেয়েছেন, লতার মরদেহের সামনে কি থুতু ছেটাচ্ছেন অভিনেতা?

এক বিজেপি নেতা অরুণ যাদবের প্রশ্ন থেকেই শুরু হয়েছে এই বিতর্ক। অনেকে টুইট করে প্রকাশ্যে অভিনেতাকে আক্রমণ করেছেন। কেউ জানতে চেয়েছেন, “লতার মরদেহের সামনে তোমার মাস্ক নামানোর কী দরকার ছিল?” আবার কেউ সরাসরিই প্রশ্ন করেছেন, “কেন আপনি থুতু ছিটিয়ে অসম্মান করেছেন লতাকে?”

কিন্তু বাস্তবে ঠিক কী করেছিলেন শাহরুখ? শাহরুখ লতার সামনে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করছিলেন তার ধর্মীয় রীতি মেনে। মুসলমান সম্প্রদায়ের রেওয়াজ অনুযায়ী ‘দুয়া’ বা প্রার্থনা করার পর যার জন্য প্রার্থনা, তাকে লক্ষ্য করে ফুঁ দেওয়া হয়। অশুভ শক্তিকে দূরে সরানোর প্রতীকী অর্থেই ওই নিয়ম পালন করা হয়। শেষ শয্যায় লতার জন্যও সেই রেওয়াজই পালন করছিলেন সুপারস্টার। মাস্ক নামিয়ে ফুঁ দিয়েছিলেন তিনি। থুতু ছেটাননি।

যদিও আক্রমণকারীরা এসব ব্যাখ্যার ধার না ধেরে প্রকৃত বিষয়টি না জেনেই শাহরুখ খানকে আক্রমণ করে গিয়েছেন। বিস্মিত শাহরুখ ভক্তদের জবাব, এমন পবিত্র বিষয়কেও এমন খাটো করে দেখা যায়!